কক্সবাজার, রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০

লাশবাহি গাড়িতে করে ফেনসিডিল পাচার!

মাদক কারবারিদের একেকটি কৌশল ছাড়িয়ে যাচ্ছে আরেকটিকে। এবার ফেনসিডিল চোরাচালানের জন্য ব্যবহার হলো লাশবাহি গাড়ি। কুমিল্লা সীমান্ত হয়ে রাজধানীতে আসা এমন একটি চালান আটকের পর বেরিয়ে এসেছে, অভিনব কৌশল। জড়িত ছয়জনকে আটক করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

লাশ বহনের গাড়ী। সন্দেহ হলে চালক ও সঙ্গে থাকাদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে গোয়েন্দা পুলিশ। দরজা খুলে দেখা যায়, ভেতরে সারি করে রাখা কাপনে মোড়ানো চারটি লাশ। আরও বাড়ে সন্দেহ। এবার মুখের অংশ খুলতেই, চোখ যেন কপালে ওঠল। কাপনে মোড়ানো সব ফেনসিডিলের বোতল। আটক করা হয় তিনজনকে। কুমিল্লা থেকে চালানটি আনা হয়েছে ঢাকায়। এক লাখ টাকায় ভাড়া করা হয় লাশবাহি গাড়ি।

পরে তাদের দেয়া তথ্য মতে, চক্রের মূল হোতা সাদ্দামসহ ছয়জনকে আটক করা হয়। গোয়েন্দারা জানান, দেশের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে প্রবেশ করছে ফেনসিডিল। যার মধ্যে আছে দিনাজপুরের হিলি, চুয়াডাঙ্গার দর্শনা, কুমিল্লা, আখাউড়া ও শ্যামনগর।

কর্মকর্তারা জানান, সীমান্তে দুর্বলতা কাজে লাগিয়ে নানা ধরনের মাদক দেশে নিয়ে আসছে চোরাকারবারিরা। ফেনসিডিলসহ মাদক চোরাচালান বন্ধে সবাইকে আরো কঠোর ভূমিকা পালন করা প্রয়োজন বলে মনে করেন তারা।

পাঠকের মতামত: