কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১

লেখক মুশতাকের মৃত্যু : ১৩ দেশের রাষ্ট্রদূতের গভীর উদ্বেগ, তদন্তের আহ্বান

কারাগারে লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুতে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ ঢাকাস্থ ১৩ দেশের রাষ্ট্রদূত ও হাইকমিশনারেরা।

এক বিবৃতিতে গতকাল শুক্রবার অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কোঅপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট-ওইসিডিভুক্ত ১৩ দেশের ঢাকাস্থ মিশন প্রধানেরা যৌথ বিবৃতিতে এ উদ্বেগ জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়, মুশতাক আহমেদ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ধারায় বিচারের আগেই আটক অবস্থায় ছিলেন। বেশ কয়েকবার জামিন দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আটকাধীন অবস্থায় তাঁর প্রতি যে আচরণ করা হয়েছে, তা নিয়ে উদ্বেগ রয়েছে। বিবৃতিতে মিশন প্রধানেরা সরকারকে মুশতাকের মৃত্যুর একটি দ্রুত, স্বচ্ছ, স্বাধীন এবং পূর্ণাঙ্গ তদন্তের আহ্বান জানান।

এই বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ডস, ডেনমার্ক, নরওয়ে, স্পেন, সুইডেন, সুইৎজারল্যান্ড ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূতেরা, এবং যুক্তরাজ্য ও কানাডার হাইকমিশনারেরা।

মুশতাক আহমেদের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি

রাষ্ট্রদূতেরা বিবৃতিতে আরো বলেন, ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টের ধারাগুলো এবং তার বাস্তবায়ন এবং আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনগুলোর সঙ্গে এর সঙ্গতিবিধান নিয়ে তাঁদের যে বৃহত্তর উদ্বেগগুলো রয়েছে—তা নিয়ে তাঁরা বাংলাদেশের সরকারের সঙ্গে কাজ করে যাবেন।

এ ছাড়া আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচও এক বিবৃতিতে মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর স্বচ্ছ ও স্বাধীন তদন্তের আহ্বান জানিয়েছে।

বিদ্রূপাত্মক কার্টুনের ক্যাপশন দেওয়া এবং সরকারের বিরুদ্ধে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে মুশতাক আহমেদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছিল।

সরকার বলছে, মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর কারণ যাই হোক—তা তদন্ত করে দেখা হবে।

পাঠকের মতামত: