কক্সবাজার, শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২

সিনহা হত্যা মামলা: ১৩ আসামির পক্ষে যুক্তিতর্ক শেষ

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলায় আসামিদের দেওয়া বক্তব্যের ওপর টানা চার দিনের যুক্তিতর্কের দ্বিতীয় দিনে ৭ আসামির পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করা হয়েছে। ১৫ আসামির মধ্যে ১৩ আসামির যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়েছে।

সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইলের আদালতে এ যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করা হয়।

বাদীপক্ষের আইনজীবী সৈয়দ রেজাউর রহমান বলেন, সাক্ষীদের সাক্ষ্যের ওপর ভিত্তি করে সন্দেহের ঊর্ধ্বে থেকে অভিযোগ প্রমাণ করতে সক্ষম হয়ে আদালতের কাছে আইন অনুযায়ী ন্যায়বিচার প্রার্থনা করেছি। আসামিপক্ষের বক্তব্যের আলোকে আগামীকাল থেকে বাদীপক্ষের বক্তব্য গ্রহণ করা হবে।

এজলাস থেকে বেরিয়ে আসামিপক্ষের আইনজীবী রানা দাশ গুপ্ত জানান, যুক্তিতর্ক শেষ হওয়ার পর মামলার রায়ের জন্য অপেক্ষায় থাকবেন তারা।

চারদিনের এই যুক্তিতর্ক চলবে ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত। যুক্তিতর্ক উপলক্ষে সকালে কড়া নিরাপত্তায় সাবেক ওসি প্রদীপসহ ১৫ আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ২০২০ সালের ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফের বাহারছড়া চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে খুন হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।

এ ঘটনার পাঁচদিন পর ৫ আগস্ট নিহত সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস বাদী হয়ে বাহারছড়া পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের তৎকালীন ইনচার্জ লিয়াকত আলীকে প্রধান আসামি এবং টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ৯ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেন। মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পায় র‍্যাব।

চার মাসের বেশি সময় ধরে চলা তদন্তের পর ২০২০ সালের ১৩ ডিসেম্বর ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট জমা দেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। অভিযোগপত্রে সিনহা হত্যাকাণ্ডকে ‘পরিকল্পিত ঘটনা’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

২৭ জুন ১৫ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। এরপর গত ২৩ আগস্ট কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইলের আদালতে সাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণ এবং জেরা শুরু হয়ে শেষ হয় গত ১ ডিসেম্বর। যেখানে ৬৫ জন সাক্ষী সাক্ষ্য দিয়েছেন।

পাঠকের মতামত: