কক্সবাজার, রোববার, ২৬ মে ২০২৪

সেলফি তুলতে আসায় আবারো ভক্তকে মারতে গেলেন সাকিব

মাঠের ক্রিকেটে সাকিবের পারফরম্যান্স প্রশংসনীয়। তবে খেলোয়াড় হিসেবে সাকিব বিশ্বে প্রশংসনীয় হলেও ব্যক্তি সাকিবের আচরণ নিয়ে অভিযোগ রয়েছে।

ক্যামেরাম্যানের ওপর বিরক্ত হয়ে লাইভ ম্যাচে বাজে অঙ্গভঙ্গি, আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত পক্ষে না যাওয়ায় স্টাম্পে লাথি, আম্পায়ারকে মারার জন্য তেড়ে যাওয়া, কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনকে মারার জন্য তেড়ে যাওয়াসহ সাকিবের বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা ভাঙ্গের অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে।

মেজাজ হারিয়ে ভক্তকে চড় মারার ঘটনা সাকিব ঘটিয়েছেন বহুবার। এবার নতুন করে আবারও বিতর্কে এই ক্রিকেটার। আবারও মেজাজ হারালেন সাকিব।

জানা গেছে, নারায়নগঞ্জে শেখ জামাল ও প্রাইম ব্যাংকের ম্যাচ শুরুর আগে সেলফি তুলতে যান এক ভক্ত। আর তখনই মেজাজ হারান সাকিব।

আজ সোমবার ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন লিগের ম্যাচ নারায়নগঞ্জের ফতুল্লায় খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় সাকিবের শেখ জামাল ও তামিম ইকবালের প্রাইম ব্যাংক। জানা গেছে, ম্যাচ শুরুর আগে মাঠের পাশে দুই কোচের সঙ্গে আলাপ করছিলেন সাকিব। এ সময় একজন ভক্ত ছবি তুলতে গেলে মোবাইল কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন এবং মারতে উদ্যত হন।

এর আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ চলাকালীন সময়ে একটি ইভেন্টে উপস্থিত হন সাকিব। তারকা ক্রিকেটারকে সেখানে দেখে তার ভক্ত-সমর্থদের মধ্যে উৎসাহ ছিল তুঙ্গে। নিরাপত্তারক্ষীরা সাকিবকে ঘিরে থাকলেও ভিড়ের মাঝে আটকে পড়েন তিনি। তার সঙ্গে ছবি তোলা এবং অটোগ্রাফের আবদার ছাড়াও তারকা ক্রিকেটারকে ছুঁয়ে দেখার চেষ্টা করেন অনেকে।

ভিড়ের মাঝে এক ভক্ত সাকিবের ক্যাপ খুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখনই মেজাজ হারিয়ে বসেন তারকা ক্রিকেটার। ক্যাপ কেড়ে নিয়ে সেই ক্যাপ দিয়েই ভক্তকে বেশ কয়েকবার মারতে দেখা যায় সাকিবকে। সামাজিক যোগাযোগেরমাধ্যমে এ বিষয়টি নিয়ে নিন্দার ঝড় বয়ে যায়।

এছাড়া মাগুরা-১ আসন থেকে নির্বাচন করার সময় ভোট চলাকালীন নিজের আসনের একটি কেন্দ্র পর্যবেক্ষণে যান সাকিব। তখন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারকে সামনে পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন ভক্ত-সমর্থকরা। অনেক তরুণ ভক্ত বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের সঙ্গে সেলফি তোলার চেষ্টা করেন। তখন মানুষের ভিড়ে সাকিব ঠিকমতো হাঁটতে পারছিলেন না। সেই সময় মেজাজ হারিয়ে এক ভক্তকে কষিয়ে চড় মারেন সাকিব।

মুহূর্তের মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সাকিব আল হাসানের চড় মারার সেই ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। এনিয়েও অনেকে নেতিবাচক মন্তব্য করেন।

পাঠকের মতামত: