কক্সবাজার, শনিবার, ২১ নভেম্বর ২০২০

হাকিম ডাকাতকে ধরার জন্য তৎপরতা অব্যাহত আছে : এসপি মাসুদ

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী::

রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পে অত্যাচার, নির্যাতনকারী হাকিম বাহিনীর প্রধান রোহিঙ্গা হাকিম ডাকাতকে ধরার জন্য কক্সবাজার জেলা পুলিশের তৎপরতা অব্যাহত আছে। এ বিষয়ে গোয়েন্দারা মাঠে বেশ তৎপর রয়েছে। তবে হাকিম বাহিনীর প্রধান হাকিম ডাকাতের অবস্থানের বিষয়ে জেলা পুলিশের কাছে ২ ধরনের তথ্য রয়েছে। তার একটা হলো-সে পালিয়ে দেশের বাইরে চলে গেছে। আর একটা হলো সে এখনো বাংলাদেশে আছে।

কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার) এর কাছে ভয়ংকর হাকিম ডাকাতকে ধরার ব্যাপারে জেলা পুলিশের তৎপরতা কি জানতে চাইলে গত ২০ জুলাই তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, গত ৩ মাসে ১০ টি জায়গায় হাকিম ডাকাতের অবস্থান সনাক্ত করে অভিযান চালানো হয়েছে। কিন্তু টেকনাফের বাহারছরা হতে উখিয়া পর্যন্ত দীর্ঘ ২৭/২৮ কি. মি. লম্বা ও উঁচু পাহাড় হওয়ায় তাকে ধরা যায়নি। তাকে ধরার জন্য জেলা পুলিশ ছাড়া অন্যান্য বাহিনীও অভিযান চালিয়েছে। এসপি এবিএম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার) বলেন, সমস্যা হলো হাকিম ডাকাত গহীন পাহাড়ে বসবাস করতে অভ্যস্থ এবং সে পাহাড়ের ছুঁড়ায় অবস্থান করে। গত সপ্তাহ খানেক আগে সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে হাকিম ডাকাতকে ধরার জন্য টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপে অভিযান চালানো হয়। সেদিনও হাকিম ডাকাত পুলিশের হাতছাড়া হয়ে যায়। তবে সে দিন হাকিম ডাকাতের ২ ভাই ও ২ ঘনিষ্ঠ সহযোগী আটক হয়ে পুলিশের সাথে এনকাউন্টারে ৪ জনই মারা যায়।

হাকিম ডাকাত দেশে থাকলেই তাকে যে কোনভাবেই হোক আইনের আওতায় আনা হবে বলে উল্লেখ করে এসপি এবিএম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার) বলেন, তাকে ধরার জন্য পুরস্কার ঘোষনা করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত: