কক্সবাজার, রোববার, ২২ নভেম্বর ২০২০

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে মিথানল: এসিআইকে ১ কোটি টাকা জরিমানা

এসিআইয়ের হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ক্ষতিকর মিথানল উপাদান থাকার দায়ে প্রতিষ্ঠানটিকে এক কোটি টাকা জরিমানা করেছে র‍্যাব। এছাড়া আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে পণ্যটিকে বাজার থেকে সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেয়া হয়। র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম আজ রবিবার (১১ অক্টোবর) বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

সরোয়ার আলম বলেন, বিশেষজ্ঞদের মতামত অনুযায়ী হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরিতে জীবাণুনাশক উপাদান হিসেবে মূলতঃ আইসোপ্রোপাইল এলকোহল বা ইথানল ব্যবহার করা হয়। কোনো কোনো স্যানিটাইজারে দুটিই নির্দিষ্ট মাত্রা ও অনুপাতে ব্যবহার করা হয়ে থাকলেও এর কোনোটির বদলে মিথানলের ব্যবহার অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। গত রবিবারের (৪ অক্টোবর) ওই অভিযানে স্যাভলন হ্যান্ড স্যানিটাইজারে মিথানলের প্রমাণ পাই। তবে আরো নিশ্চিত হওয়ার জন্য গাজীপুরের কারখানায় পাওয়া হ্যান্ড স্যানিটাইজার পরীক্ষার জন্য অন্যান্য কয়েকটি পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়। এসব পরীক্ষার ফলাফল আজ রবিবার হাতে পেয়েছি। ফলাফলে মিথানল ব্যবহার করে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির দায়ে এসিআইকে ১ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছ। পাশাপাশি ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে পণ্যটি বাজার থেকে সরিয়ে ফেলতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৪ অক্টোবর জনস্বার্থ বিবেচনায় বাজারে থাকা বিভিন্ন কোম্পানির ১৪টি হ্যান্ড স্যানিটাইজার ল্যাবে নিয়ে পরীক্ষা করে র‌্যাব। সেই পরীক্ষাতেই এসিআইয়ের স্যাভলন ব্র্যান্ডের হ্যান্ড স্যানিটাইজারে রয়েছে বিষাক্ত মিথানলের উপস্থিতির কথা জানা যায়। পরে র‍্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে এসিআইয়ের গাজীপুরের কোনাবাড়ীতে অবস্থিত কারখানাটি সিলগালা করে দেয়া হয়। একইসাথে কারখানাটিকে ১৭ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়। বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক গবেষণার ফল অনুযায়ী, স্যানিটাইজার হিসেবে মিথানল ব্যবহার করলে ত্বকে দীর্ঘস্থায়ী ক্ষত তৈরি হওয়াসহ আরো নানা ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। ফলে হ্যান্ড স্যানিটাইজারে কোনোভাবেই মিথানল ব্যবহার করা স্বাস্থ্য উপযোগী নয়।

পাঠকের মতামত: