কক্সবাজার, সোমবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২১

২০২০ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬৬৮৬

কক্সবাজারের রামুর ঈদগড় ও টেকনাফের সাবরাং থেকে পৃথক অভিযানে ১ লাখ ৪০ হাজার ইয়াবাসহ ৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এর মধ্যে রামুর ঈদগড় থেকে এক লাখ ইয়াবাসহ হাফেজ আহমেদ (৩৫) নামে এক সিএনজি অটোরিকশা  চালককে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

এ সময় পাচার কাজে ব্যবহৃত সিএনজিটিও জব্দ করা হয়। আজ শনিবার সকাল পৌনে ১০ টার দিকে ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কের ছেনুছড়া এলাকা তাকে এসব ইয়াবাসহ আটক করা হয়।

আটক হাফেজ আহমেদ বান্দরবানের রুমা উপজেলার রুমকি গ্রামের মৃত আব্দুল হাফেজের ছেলে।
জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী জানান, শনিবার ভোররাত থেকে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে ঈদগাঁও-ঈদগড় সড়কের ছেনুছড়ায় চেকপোস্ট বসানো হয়। পরে আজ সকালে ঈদগড় থেকে আসা একটি সিএনজিতে তল্লাশি চালিয়ে ১ লাখ ইয়াবা পাওয়া যায়। পরে সিএনজি চালক হাফেজ আহমেদ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ইয়াবা পাচারের কথা স্বীকার করেন।

বিদায়ী ২০২০ সালে ৪৮৯১টি সড়ক দুর্ঘটনায় ছয় হাজার ৬৮৬ জন নিহত এবং ৮ হাজার ৬০০ জন আহত হয়েছে। একই সময় রেলপথে ৩২৩টি দুর্ঘটনায় মারা গেছেন ৩১৮ জন, আহত হয়েছেন ৭৯ জন। ১৮৩টি নৌ দুর্ঘটনায় ৩১৩ জন নিহত, ৩৪২ জন আহত এবং ৩৭১ জন নিখোঁজ হয়েছেন।

শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী এই পরিসংখ্যান প্রকাশ করে।

তিনি জানান, বিদায়ী বছরে সড়ক, রেল ও নৌপথে পাঁচ হাজার ৩৯৭টি দুর্ঘটনায় সাত হাজার ৩১৭ জন নিহত ও নয় হাজার ২১ জন আহত হয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের জরিপে দেখা গেছে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রতিদিন ২২০ জন পঙ্গুত্ব বরণ করে।

উল্লেখিত সময়ে সংগঠিত দুর্ঘটনায় সর্বমোট ৬ হাজার ৭৩৬টি যানবাহনের পরিচয় মিলেছে, যার ১৩.১২ শতাংশ বাস, ২৮.৩৯ শতাংশ ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান, ৫.৪১ শতাংশ কার-জিপ-মাইক্রোবাস, ৮.৫২ শতাংশ সিএনজিচালিত অটোরিকশা, ২৪.৮০ শতাংশ মোটরসাইকেল, ৯.০৮ শতাংশ ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ও ইজিবাইক, ১০.৬৪ শতাংশ নছিমন-করিমন-মাহিন্দ্রা-ট্রাক্টর ও লেগুনা সড়ক দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে।

সংগঠিত মোট দুর্ঘটনার ৫২.৯৬ শতাংশ গাড়িচাপা দেওয়ার ঘটনা, ২২.০৬ শতাংশ মুখোমুখি সংঘর্ষ, ১৭.০৮ শতাংশ খাদে পড়ে ।

পাঠকের মতামত: