কক্সবাজার, রোববার, ২২ নভেম্বর ২০২০

দেশ ছেড়ে ঘর বাঁধতে এসে বিপদে ভারতীয় নারী

বাংলাদেশি স্বামীর সঙ্গে ঘর বাঁধার স্বপ্ন নিয়ে ভারতীয় এক নারী কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে অবস্থান করছেন। তার সঙ্গে রয়েছে তিন বছরের ছেলে। ভারতীয় ওই নারীর নাম সুনিয়া সাউ (২৯)। তিনি ভারতের ছত্তিশগড় রাজ্যের মঙ্গলী জেলার জেড়াগাঁও থানার মৃত ফাগুরাম সাউ ও রাজকুমারী দম্পতির মেয়ে। তার প্রথম বিয়ে হয় একই রাজ্যের ধনউড়া এলাকার রহিত শর্মার সঙ্গে।

ওই গৃহবধূর আগের স্বামীর এক ছেলে ও এক মেয়ে ছিল। তিনি এখন বিজিবির হেফাজতে রয়েছেন। অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে ওই নারীকে থানায় সোপর্দ করা হবে বলে বিজিবি জানিয়েছে। ওই এলাকার আবু বক্কর ও আ. ছালাম জানান, কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের অনন্তপুর চানদোলারপাড় গ্রামের মৃত আবুল কাসেম আলীর ছেলে ওবায়দুল হক কয়েক বছর আগে ভারতের দিল্লিতে গিয়ে রাজমিস্ত্রির কাজ করেন। কাজের সুবাদে ওই নারীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সাড়ে তিন বছর আগে দিল্লিতে তাকে বিয়ে করেন।

ভারতে বসবাসের সুবাদে তাদের ঘরে একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। ছেলেটির বয়স তিন বছর। ওবায়দুল হকের পাসপোর্ট থাকায় বৈধভাবে দেশে ফিরে আসেন। ভারতীয় নারী সুনিয়া সাউ এক মাস আগে দু’দেশের দালালের মাধ্যমে কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী সীমান্ত পার হয়ে ওবায়দুল হকের বাড়িতে আসেন। স্থানীয়দের চোখের আড়ালে ঘর-সংসার করছেন ওই নারী। ওবায়দুল হকের প্রথম স্ত্রী কল্পনা বেগম দ্বিতীয় স্ত্রীকে মেনে নিয়ে ঘর-সংসার করেন উভয়ই। সম্প্রতি প্রথম স্ত্রী কল্পনা বেগমের সঙ্গে স্বামী ওবায়দুল হকের ঝগড়া হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তার প্রথম স্ত্রী কল্পনা ভারতীয় স্ত্রী সুনিয়া সাউ অবৈধভাবে প্রবেশ করে ঘর-সংসার করার তথ্য এলাকায় ছড়িয়ে দেন। খবর পেয়ে বিজিবি শুক্রবার দুপুরে ওই নারীকে আটক করে।

ভারতীয় ওই নারী বলেন, ‘প্রেম করে চার বছর আগে ভারতের দিল্লিতে আমরা বিয়ে করেছি। আমি জন্মভূমি, ছেলেমেয়ে ও পরিবারের মায়া ত্যাগ করে বাংলাদেশে এসেছি। আমার একটি এখন ছেলে সন্তান রয়েছে। আমি এখানেই ঘর-সংসার করে থাকতে চাই।’

এ প্রসঙ্গে বিজিবি লালমনিরহাট ১৫ ব্যাটালিয়নের কমান্ডার লে. কর্নেল এস এম তৌহিদ-উল-আলম জানান বিষয়টি জানানোর পর ওই গৃহবধূকে আটক করা হয়েছে। বিএসএফের সঙ্গে কথা হয়েছে। গৃহবধূর সঠিক পরিচয় তাদের জানা নেই। সে জন্য ওই নারীকে নেবেন না। অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে ওই নারীকে থানায় সোপর্দ করা হবে।

পাঠকের মতামত: