কক্সবাজার, বুধবার, ২ ডিসেম্বর ২০২০

কাশ্মীরে গুলিতে ৭ স্বাধীনতাকামীসহ নিহত ৮

ভারতের নিয়ন্ত্রণাধীন কাশ্মীরের ৭ স্বাধীনতাকামী ও এক সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় শুক্রবার (২৮ আগস্ট) দিনগত রাত থেকে শনিবার (২৯ আগস্ট) সন্ধ্যা পর্যন্ত গুলিতে নিহতের এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহতদের মধ্যে কাশ্মীর স্বাধীনতা আন্দোলনের একজন জেলা পর্যায়ের নেতা রয়েছেন।

কাশ্মীরের পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার (২৯ আগস্ট) সকালে পুলওয়ালামা জেলার একটি পাহাড়ের গুহায় অভিযানের সময় এক সেনা সদস্যসহ ৪ জন নিহত হন। ঘটনাস্থল থেকে একটি রাইফেল ও দুটি পিস্তল উদ্ধারের দাবি করে পুলিশ।

এর আগে শুক্রবার (২৮ আগস্ট) সোপিয়ান জেলায় অভিযানের সময় আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর গুলিতে ৪ স্বাধীনতাকামী নিহত হন। একই সঙ্গে একজনকে আটক করা হয় বলে জানানো হয়। এসময় দুটি সংক্রিয় রাইফেল ও ৩টি পিস্তল উদ্ধার করা হয়।

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত জম্মু-কাশ্মীরে ভারতীয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী অন্তত ১৮০ জনকে বিভিন্ন অভিযানের নামে হত্যা করে বলে জানায় অস্ট্রেলিয়া ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম এবিসি নিউজ।

সংবাদমাধ্যমটি দাবি করে, নিহতদের মধ্যে অর্ধেকের বেশি মানুষ গত ৪ থেকে ৬ মাসের মধ্যে বিভিন্ন স্বাধীনতাকামী সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত ছিল। কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর থেকেই ওই অঞ্চলের তরুণদের মধ্যে স্বাধীনতার দাবি চড়াও হতে থাকে।

উদ্ধৃতি দিয়ে এবিসি নিউজ জানায়, জানুয়ারি থেকে সরকারি বাহিনীর অন্তত ৬৪ সদস্য বিভিন্ন সময় তাদের সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন। আর তাদের নিজেদের ৪৬ জন নিহত হয়েছেন।

কাশ্মীরকে কেন্দ্র করে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সীমান্তে দীর্ঘদিন ধরে যুদ্ধাবস্থা বিরাজ করছে। এতে চলতি বছরে নানা সময় সংঘর্ষে কয়েক ডজন সেনা ও বেসামরিক লোক নিহত হয়েছেন। ভারতীয় উপ-মহাদেশের মুসলিমরা মনে করে কাশ্মীর পাকিস্তানের অধীনে থাকা উচিৎ এবং সেখানকার স্থানীয় কাশ্মীরের মানুষও পাকিস্তানের অধীন অথবা স্বাধীনতা যেকোনো একটির পক্ষেই কথা বলছেন। তবে বর্তমানে তাদের দাবি স্বাধীনতা ছাড়া অন্য কোনো উপায় নেই।

এ দিকে ভারতের অভিযোগ কাশ্মীরের স্বাধীনতাকামীদের যুদ্ধের প্রশিক্ষণ দিচ্ছে পাকিস্তান। তবে, পাকিস্তান সেটি প্রত্যাখ্যান করে আসছে।

ভারতের সংবিধানের ৩৫-ক ধারা ও ৩৭০ অনুচ্ছেদ কাশ্মীরকে যে মর্যাদা দিয়েছে তা বাতিল করা হয় গত বছর। ৩৭০ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী জম্মু ও কাশ্মীরের এমন এক স্বায়ত্তশাসন রয়েছে যা ১৯৪৭ সালের পর দক্ষিণ এশিয়ার আর কোনো দেশের রাজ্য পায়নি। অনুচ্ছেদ ৩৭০ ভারতীয় রাজ্য জম্মু ও কাশ্মীরকে নিজেদের সংবিধান এবং একটি আলাদা পতাকার স্বাধীনতা দিয়েছে।
এ ছাড়া পররাষ্ট্র সম্পর্কিত বিষয়াদি, প্রতিরক্ষা এবং যোগাযোগ বাদে অন্য সব ক্ষেত্রে স্বাধীনতার নিশ্চয়তাও দিয়েছে। এটি বাতিল করায় কাশ্মীরের জনগণ স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে আন্দোলন শুরু করে।

পাঠকের মতামত: