কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর ২০২০

রোহিঙ্গা সংকট ‘বিষফোঁড়া ক্যান্সারে রূপ নিতে পারে

সীমিত সম্পদ নিয়ে বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের সব ধরনের সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে জেনেভাস্থ জাতিসংঘ অফিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. মোস্তাফিজুর রহমান বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিদের বলেছেন, বাংলাদেশের ঘাড়ে জেঁকে বসা রোহিঙ্গা সংকটের অতি দ্রুত সমাধান জরুরি হয়ে পড়েছে।

তার মতে, সংকট প্রলম্বিত হলে ওই ‘বিষফোঁড়া’ ক্যান্সারে রূপ নিতে পারে। রোহিঙ্গা সংকট ভয়াবহ রূপ নেয়ার আগেই আন্তর্জাতিক সমপ্রদায়কে এর লাগাম টানতে হবে। জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক কমিশনারের কার্যালয়ের বার্ষিক নির্বাহী কমিটির সভায় বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের বক্তব্য প্রদানকালে তিনি এসব কথা বলেন। গত ৫ই অক্টোবর থেকে পাঁচ দিনব্যাপী ওই সভা চলছে। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের প্রধান প্রথম বক্তব্য রাখার ফ্লোর পান। এ সময় তিনি কোভিড-১৯ এর ঝুঁকি মোকাবিলায় বাংলাদেশ যা করেছে বিশেষত রোহিঙ্গা ক্যাম্পকে নিরাপদ রাখতে বাংলাদেশ সরকার গৃহীত কার্যক্রমের বিস্তারিত আন্তর্জাতিক সমপ্রদায়কে অবহিত করেন।

জেনেভাস্থ বাংলাদেশ মিশনের সংবাদ বিজ্ঞপ্তি মতে, রাষ্ট্রদূত তার বক্তৃতায় বলেন, নানাবিধ সংকটের পরেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকার রোহিঙ্গাদের সব ধরনের মানবিক সহায়তা দিয়ে চলেছে।

রাষ্ট্রদূত মিস্টার রহমান রোহিঙ্গাদের স্বেচ্ছা প্রত্যাবাসন নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত তাদের মৌলিক চাহিদা মেটাতে আন্তর্জাতিক সংহতি ও সহমর্মিতা এবং দায়ভার ও দায়িত্ব ভাগাভাগির নীতির ভিত্তিতে যথাযথ মানবিক সহায়তা প্রদান বজায় রাখতে বিশ্ব সমপ্রদায়কে অনুরোধ জানান। এ বিষয়ে চলমান মহামারির কারণে রোহিঙ্গাদের জন্য অন্যান্য নিয়মিত ও মৌলিক মানবিক সহায়তা প্রদান যেনো ব্যাহত না হয় সে বিষয়ে বিশবাসীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। রোহিঙ্গা সমস্যার উৎস মিয়ানমারে এবং এর স্থায়ী সমাধান মিয়ানমারে বিদ্যমান উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত আঞ্চলিক শান্তি বজায় রাখার নিমিত্তে রোহিঙ্গাদের নিজভূমিতে স্থায়ী প্রত্যাবাসনের মাধ্যমে এ সমস্যার দ্রুততম সমাধান কামনা করেন।

পাঠকের মতামত: