কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০

সোনাদিয়া দ্বীপে গভীর সমুদ্র বন্দর প্রকল্প বাতিল

বঙ্গোপসাগরের সোনাদিয়া দ্বীপে গভীর সমুদ্র বন্দর প্রকল্প আনুষ্ঠানিকভাবে বাতিল করেছে বাংলাদেশ সরকার। চীনের সঙ্গে ওই হাই-প্রোফাইল প্রকল্পটি ভারত সাগর অঞ্চলে দেশটির অর্থনৈতিক ও কৌশলগত অবস্থান এগিয়ে নিতে পারত।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের বরাতে ১২ অক্টোবর, সোমবার এ খবর দিয়েছে দি ডিপ্লোম্যাট।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, দৃশ্যত পরিবেশগত উদ্বেগ বাংলাদেশকে এই প্রকল্প বাতিল করতে উদ্বুদ্ধ করেছে। একটি গভীর সমুদ্র বন্দর প্রকল্প ওই এলাকার জীব-বৈচিত্র্যকে হুমকির মুখে ফেলতে পারে।

তবে সোনাদিয়া দ্বীপ থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে মাতারবাড়িতে একটি গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ করা হবে বলেও তিনি জানান।

২০০৬ সালে প্রথম সোনাদিয়ায় একটি গভীর সমুদ্র বন্দরের ধারণাপত্র গ্রহণ করা হয়। বন্দরটি নির্মাণে এবং প্রকল্পটিতে অর্থ দিতে আগ্রহী হয় চীন। ২০১৪ সালের জুলাইয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চীন সফরে প্রকল্পটির চুক্তিপত্র স্বাক্ষরে দুই দেশ সম্মত হয়েছিল, তবে সেটি হয়নি।

সংবাদ মাধ্যমটি জানায়, আগস্টের শেষে মন্ত্রিপরিষদের একটি সভায় শেখ হাসিনা সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে সোনাদিয়া ডিপ সি পোর্ট অথোরিটি অ্যাক্ট ২০১২ তুলে নেয় এবং প্রকল্পটি বাতিল ঘোষণা করে।

অন্যদিকে জাপানি সাহায্যে বাংলাদেশ বর্তমানে মাতারবাড়িতে গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণ করছে। সোনাদিয়ার মতো এই বন্দরটিও বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত এবং ভারতের কাছাকাছি।

ফলে ২০২৫ সালের মধ্যে বাংলাদেশ প্রথম গভীর সমুদ্র বন্দর পেতে যাচ্ছে।

পাঠকের মতামত: