কক্সবাজার, শনিবার, ৬ মার্চ ২০২১

রাখাইনে মাইন বিস্ফোরণে ১০ রোহিঙ্গা শিশু নিহত

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের বুচিদং এলাকায় ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণে ১০ রোহিঙ্গা শিশু নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

রাখাইন থেকে একাধিক সূত্র মাইন বিস্ফোরণের খবর নিশ্চিত করে জানায়, বুচিদং টাউনশিপের টিকটি পাউক গ্রামের কাছে একদল শিশু-কিশোরসহ স্থানীয় রোহিঙ্গারা জঙ্গলে কাঠ সংগ্রহ করছিল। এ সময় জঙ্গলে পুঁতে রাখা একটি মাইন বিস্ফোরিত হলে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

এ অঞ্চলের সংসদ সদস্য অং থাং শোয়ের বরাত দিয়ে স্থানীয় লোকজন জানান, চার শিশু ঘটনাস্থলেই মারা যায়। হাসপাতালে নেওয়ার পরে মারা গেছে আরও ৬ শিশু। ল্যান্ডমাইন বিস্ফোরণে একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তিসহ পাঁচ কিশোর বালক আহত হয়েছে।

অং থাং শোয়ে বলেন, এটি সন্ত্রাসীদের কাজ। এ অঞ্চলে বৃহত্তর স্বায়ত্তশাসনের জন্য সেনাবাহিনীর সঙ্গে লড়াই করছে আরাকান আর্মি। ধারণা করা হচ্ছে যুদ্ধে কোনো একটি পক্ষ বনের মধ্যে ল্যান্ডমাইন রেখেছিল। গত জানুয়ারিতে পুলিশ ফাঁড়িতে সুসংহত হামলা চালিয়ে ১৩০ জনকে হত্যা করেছিল তারা। আরাকান আর্মি অনলাইনে ভুল তথ্য প্রচার করছে অভিযোগ এনে মিয়ানমার সরকার গত জুন থেকে রাখাইন রাজ্যে ইন্টারনেট নিষিদ্ধ করেছে।

২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমার সেনাবাহিনী রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা ও দমন নির্যাতন শুরু করলে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসতে বাধ্য হয়। আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ওআইডিএর একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট ও এর পরবর্তী অভিযানে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় বাহিনী প্রায় ২৪ হাজার রোহিঙ্গা মুসলমানকে হত্যা করে।

ওআইডিএর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও পুলিশ দ্বারা প্রায় ১৮ হাজার রোহিঙ্গা নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। সেখানে এক লাখের বেশি রোহিঙ্গার বাড়ি পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। এর পরও সেখানে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধ হয়নি। আরাকান আর্মির বিরুদ্ধে অভিযানে নামে রোহিঙ্গাদের বাড়িঘরে যেতে দেওয়া হচ্ছে না। তাদের উদ্বাস্তু করে বিভিন্ন স্থানে অস্থায়ী ক্যাম্পে রাখা হয়েছে। সমকাল

পাঠকের মতামত: