কক্সবাজার, বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

দাঁত দেখালেই খুলবে স্মার্টফোনের লক

আট থেকে আশি, বর্তমানে কম বেশি সবাই স্মার্টফোনে সরব। এখন প্রায় সব ফোনেই রয়েছে ফেস আনলক অথবা বায়োমেট্রিক পদ্ধতি। তবে এবার মুখ দেখিয়ে অথবা আঙুলের মাধ্যমে ফোন আনলক করার দিন শেষ। এবার দাঁত দেখালেই খুলে যাবে ফোন! নিশ্চয়ই ভাবছেন ব্যাপারটা কী।
দাঁত দেখালেই খুলবে স্মার্টফোনের লক

এবার দাঁত দেখিয়ে ফোন আনলক করার প্রযুক্তি তৈরি করলেন ভারতের বিজ্ঞানীরা। স্মার্টফোনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট আনলক বেশ জনপ্রিয়। যদিও বিগত কয়েক বছরে ফেস আনলকের জনপ্রিয়তা অন্য সব অথেন্টিকেশন পদ্ধতিকে ছাপিয়ে গেছে এ প্রযুক্তি।

মোবাইল ও অন্যান্য হ্যান্ড হেল্ড ডিভাইসে এ প্রযুক্তি ব্যবহার করা যাবে। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, তার জন্য ইতোমধ্যেই একটি বিশেষ ম্যাপ তৈরি করা হয়েছে। মোবাইলের ক্যামেরা ব্যবহার করে বায়োমেট্রিক তথ্য সংগ্রহ করবে সেই অ্যাপ। অন্যান্য অ্যাপে মুখ দেখে ফোন আনলক হলেও এ অ্যাপের মাধ্যমে মানুষের দাঁত ব্যবহার করে ফোন আনলক করার সুবিধা থাকছে।

দাঁত ব্যবহার করে ফোন আনলক করার গবেষণার নাম রাখা হয়েছে ডিপটিথ। এ গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছেন বিড়লা ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্স (বিআইটিএস), পিলানির গীতিকা অরোরা, রোহিতকে ভরদ্বাজ, এবং কমলাশ তিওয়ারি। সেখানে বলা হয়েছে, মানুষের দাঁতের ছবি তুলে সেই ছবির মাধ্যমে মোবাইল ও অন্যান্য হ্যান্ডহেল্ড ডিভাইস অথেন্টিকশনের কাজে ব্যবহার করা যাবে।

এ অ্যাপের কার্যকারিতা বোঝানোর সময় বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, মার্কার ব্যবহার করে রিজিয়ন অব ইন্টারেস্ট (আরওআই) পৃথক করা হয়। এর পরে সেখান থেকে কনট্রাস্ট লিমিটেড অ্যাডিপটিভ হিস্টোগ্রাম ইকুয়ালাইজেশন ব্যবহার করে তা এনহান্স করা হয়। ফলে ছবির ক্ল্যারিটি আরও ভালো হয়।

বিজ্ঞানীদের পক্ষ থেকে আরও দাবি করা হয়েছে, এ পদ্ধতি ব্যবহার করে আরও নিখুঁতভাবে ফোন আনলক করা যাবে। কীভাবে দাঁতের ছবির মাধ্যমে ফোনের অথেন্টিকেশন কাজ করবে, তা একটি ডায়াগ্রামের মাধ্যমে গবেষণাপত্রে বোঝানো হয়েছে। প্রথমে এ অ্যাপ মোবাইল ফোনের সামনের ক্যামেরা ব্যবহার করে আপনার দাঁতের ছবি তুলবে। এর পরে সেই ছবির রিজিয়ন অব ইন্টারেস্ট এক্সট্রাকশন ও এনহান্সমেন্ট হয়। আর তারপরেই এ অ্যাপ ডিপ ফিচার এক্সট্রাকশন করে এনরোল/ভেরিফাই ও আইডেন্টিফাই করবে।

এরপরের ধাপে অথেন্টিকেশনের কাজ শুরু হবে। এবার এনরোলড এক্সট্রাকশনকে ডেটাবেসের সঙ্গে মিলিয়ে দেখবে এ অ্যাপ। তারপর সেই ছবি ডেটাবেসের সঙ্গে মিলেছে কি না, সেই সিদ্ধান্ত নেবে এ অ্যাপ।

বিজ্ঞানীরা আরও জানিয়েছেন, মানুষ চেনার জন্য আগে দাঁতের ছবি ব্যবহার না হলেও খুব সফলভাবে দাঁতের ছবিকে মানুষ চেনার কাজে ব্যবহার করা সম্ভব।

প্রথমে প্রশিক্ষণ দিতে কিছুটা সময় লাগলেও একবার প্রশিক্ষণ শেষ হয়ে গেলে খুব দক্ষতার সঙ্গে কাজ করতে পারবে এ প্রযুক্তি।

সূত্র: এই সময়

পাঠকের মতামত: