কক্সবাজার, সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

ভারতে একদিনে সংক্রমণ কমেছে ১৪ শতাংশ, বেড়েছে মৃত্যু

 

ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্তের হার ১৪ শতাংশ কমেছে, অন্যদিকে কিছুটা বেড়েছে রোগের মৃতের সংখ্যা। রোববার দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শনিবার ভারতে করোনায় নতুন আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ২৮ হাজার ৫৯১ জন এবং এ রোগে মৃত্যু হয়েছে ৩৩৮ জনের।

 

তার আগের দিন শুক্রবার দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন ৩৩ হাজার ৩৭৬ জন এবং এ রোগে মৃত্যু হয়েছিল ৩০৮ জনের।

অর্থাৎ, ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে ৪ হাজার ৭৮৫ জন, শতকরা হিসেবে যার হার ১৪ শতাংশ। পাশাপাশি, শনিবার ভারতে এ রোগে মৃতের সংখ্যা বেড়েছে ৩০ জন।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ভারতে বর্তমানে করোনা শনাক্তের হার ১ দশমিক ৮৭ শতাংশ এবং এই রোগ থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার হার ৯৭ দশমিক ৬ শতাংশ। গত ১৩ দিন ধরে ভারতে করোনায় দৈনিক শনাক্তের হার ৩ শতাংশের নিচে আছে।

শনিবার ভারতের রাজ্যসমূহের মধ্যে করোনায় সর্বোচ্চ আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে কেরালায়। দেশটির সর্বদক্ষিণের এই রাজ্যটিতে এই দিন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২০ হাজার ৪৪৮ জন এবং এ রোগে মারা গেছেন ১৮১ জন।

 

এছাড়া তামিলনাড়ু, অন্ধ্র প্রদেশ, কর্ণাটক প্রভৃকি দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্যসমূহে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন হাজারেরও বেশি রোগী। তুলনামূলকভাবে ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানা, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান প্রভৃতি রাজ্যে সংক্রমণ কম দেখা গেছে।

ভারতে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছিল ২০২০ সালের ৩০ জানুয়ারি, কেরালায়। তারপর থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৩ কোটি ৩২ লাখ ৩২ হাজার ১৬৮ জন এবং এ রোগে মারা গেছেন মোট ৪ লাখ ৪২ হাজার ৬৮৮ জন।

এছড়া, এ পর্যন্ত ভারতে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন মোট ৩ কোটি ২৩ লাখ ৯৬ হাজার ৮৩১ জন এবং বর্তমানে দেশটিতে সক্রিয় করোনা রোগী আছেন ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৩৪৯ জন।

চলতি বছর ১৬ জানুয়ারি থেকে গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত কর্মসূচিতে ৭২ কোটিরও বেশি ডোজ করোনা টিকা ব্যবহার করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত: