কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১

রক্তপরীক্ষা করেই শনাক্ত করা যাবে ক্যানসার!

 

 

উপসর্গ দেখে বোঝার আগেই ধরা পড়বে ৫০ ধরনেরও বেশি ক্যানসার। শুধুমাত্র রক্তপরীক্ষা করেই শনাক্ত করা যাবে ক্যানসার।

এই পদ্ধতি কতটা কার্যকর তা বুঝতে বিশ্বের বৃহত্তম হিউম্যান ট্রায়াল শুরু হয়েছে ইংল্যান্ডে। সে দেশের ‘ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস (এনএইচএস)’-এর তত্ত্বাবধানে এই ট্রায়ালে অংশ নিচ্ছেন প্রায় দেড় লক্ষ স্বেচ্ছাসেবক। যাদের বয়স ৫০ থেকে ৭৭ বছরের মধ্যে। এই হিউম্যান ট্রায়ালের নাম দেওয়া হয়েছে ‘গ্যালেরি ট্রায়াল’।

গত সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) থেকে ইংল্যান্ডে শুরু হয়েছে বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে রক্তের নমুনা সংগ্রহে সরকারি অভিযান। বাড়িতেই জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে কেউ ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছেন কি না। যদি হয়ে থাকে তা কোন ধরনের ক্যানসার আর তা এখন কতটা বিপজ্জনক পর্যায়ে পৌঁছেছে সেটাও জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে বাড়িতেই।

আমেরিকায় ইতোমধ্যেই গ্যালেরি টেস্ট চালু হয়েছে। তবে সেই পরীক্ষা-পদ্ধতিতে কিছু সমস্যাও ধরা পড়েছে। মানব শরীরের টিউমার থেকে ধমনীতে ছড়িয়ে পড়া ডিএনএ’র কিছু অংশ পরীক্ষা করেই গ্যালেরি টেস্ট চালানো হয় আমেরিকায়। কিন্তু এই পদ্ধতিতে একেবারে প্রাথমিক পর্যায়ে ক্যানসার ধরা পড়ছে না বলেও সমালোচনা বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

আমেরিকায় আপাতত গ্যালেরি টেস্টের মাধ্যমে ফুসফুস, অগ্নাশয়, গলা, ঘাড় ও মাথার ক্যানসার প্রাথমিক স্তরে ধরা পড়ছে এই পরীক্ষা পদ্ধতিতে।

এনএইচএস ইংল্যান্ডের চিফ এগজিকিউটিভ আমান্দা প্রিচার্ড বলেছেন, আমেরিকার গ্যালেরি টেস্টের ফলাফলের কথা মাথায় রেখে ইংল্যান্ডের ক্ষেত্রে ওই পরীক্ষা পদ্ধতিতে কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে। এর সুফল বুঝতেই শুরু হয়েছে এই হিউম্যান ট্রায়াল।

পাঠকের মতামত: