কক্সবাজার, বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১

১২ অক্টোবর থেকে ইউনিট, ওয়ার্ড ও থানা পর্যায়ে সম্মেলন

১২ অক্টোবর থেকে ইউনিট, ওয়ার্ড ও থানা পর্যায়ে সম্মেলন শুরুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে নগর আওয়ামী লীগ। রবিবার নগরীর থিয়েটার ইনস্টিটিউটের বর্ধিত সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সভাপতির বক্তব্যে নগর কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, “দলীয় শৃঙ্খলা এবং সংহতি আমাদের সকলের অস্তিত্বকে বাঁচাবে। তাই বিরোধ-বিভেদ আমাদেরকে শুধরে ফেলে সামনের দিকে এগোতে হবে।“সামনে কঠিন সময়ের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আমাদের এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে। তাই দলের মধ্যে ছোটখাটো ভুলভ্রান্তি নিয়ে বড় কিছু ভাবার অবকাশ নেই।”

সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, “সবার সহযোগে যে সিদ্ধান্ত হবে তা অবশ্যই মেনে নিতে হবে। এ নিয়ে বিশৃঙ্খলা বা বিভেদ কখনও গ্রহণীয় হবে না। যারা দলে থেকে শৃঙ্খলা বিরোধী কর্মকাণ্ড করবেন তাদেরকে কোনভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না। “যারা দায়িত্বে থেকে সংগঠনের কাজ নিয়ে অবহেলা করেন এবং বিভিন্ন রকম অজুহাত সৃষ্টি করে থাকেন, তারা দয়া করে পদ থেকে সরে দাঁড়ান।”

নগর কমিটির সদস্য শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, “অন্যান্য জেলার চাইতে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ অনেক শক্তিশালী। নগর আওয়ামী লীগ স্থানীয় নেতৃত্বকে বেগবান করে যে পর্যায়ে এসেছে তা নেত্রীর আস্থাভাজন। সামনে জাতীয় নির্বাচন আসছে। এক্ষেত্রে তৃণমূলকে আরও শক্তিশালী হতে হবে।

উপস্থিত ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী, সুনীল কুমার সরকার, ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, খোরশেদ আলম সুজন, এম জহিরুল আলম দোভাষ ডলফিন ও আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, যুগ্ম সম্পাদক বদিউল আলম, কোষাধ্যক্ষ আবদুচ ছালাম, উপদেষ্টা শফর আলী ও শেখ মাহমুদ ইছহাক, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য নোমান আল মাহমুদ, চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, হাসান মাহমুদ শমসের, শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, চন্দন ধর, মশিউর রহমান চৌধুরী, হাজী মো. হোসেন, জহুর আহমেদ, জোবাইরা নার্গিস খান, জালাল উদ্দিন ইকবাল, মাহবুবুল হক মিয়া, দিদারুল আলম চৌধুরী, আবদুল আহাদ, আবু তাহের, শহিদুল আলম প্রমুখ।

পাঠকের মতামত: