কক্সবাজার, রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১

২৩ প্রতিষ্ঠানকে দেয়া হচ্ছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প পুরস্কার

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প পুরস্কার-২০২০ উপলক্ষে মনোনীত দেশের ২৩টি শিল্প প্রতিষ্ঠানকে আগামীকাল বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিক সম্মাননা প্রদান করা হবে। বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাজধানীর মতিঝিলে অবস্থিত শিল্প মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন শিল্পসচিব জাকিয়া সুলতানা।

এ বছর সাতটি ক্যাটাগরির মধ্যে বৃহৎ ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পাচ্ছে চারটি প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে প্রথম স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড এবং দ্বিতীয় পুরস্কার পাচ্ছে জজ ভূঞা টেক্সটাইল মিলস। যৌথভাবে তৃতীয় হয়েছে আদুরি অ্যাপারেলস লিমিটেড ও ইউনিভার্সাল জিন্স লিমিটেড।বৃহৎ শাখায় স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, জজ ভূঞা টেক্সটাইল মিলস, আদুরি অ্যাপারেলস লিমিটেড এবং ইউনিভার্সাল জিন্স লিমিটেড পুরস্কার পেয়েছে। মাঝারি শিল্প শাখায় পুরস্কৃত হয়েছে অকো-টেক্স লিমিটেড, ফরচুন সুজ লিমিটেড, রহিম আফরোজ রিনিউঅ্যাবল এনার্জি লিমিটেড এবং মাধবদী ডাইং ফিনিশিং মিলস লিমিটেড।

ক্ষুদ্রশিল্প শাখায় পুরস্কার পাচ্ছে আমান প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রি, এসআর হ্যান্ডিক্রাফটস এবং আলীম ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। অতিক্ষুদ্র বা মাইক্রো ইন্ডাস্ট্রির জন্য পুরস্কারের তালিকায় রয়েছে মেসার্স কারুকলা, ট্রিম টেক্স বাংলাদেশ এবং জনতা ইঞ্জিনিয়ারিং। হাইটেক শিল্পের পুরস্কারের জন্য মনোনীত প্রতিষ্ঠান তিনটি হলো- সার্ভিস ইঞ্জিন লিমিটেড, সুপারস্টার ইলেকট্রনিক্স লিমিটেড এবং মীর টেলিকম লিমিটেড।

এছাড়া হস্ত ও কারুশিল্প শাখায় পুরস্কার পেয়েছে ক্লাসিকাল হ্যান্ডমেড প্রোডাক্ট বিডি, আয়োজন এবং সোনারগাঁ নকশি কাঁথা মহিলা উন্নয়ন সংস্থা। কুটিরশিল্প শাখায় পুরস্কৃত হয়েছে কুমিল্লা আর্ট অ্যান্ড ক্রাফটস, রংমেলা নারী কল্যাণ সংস্থা এবং অগ্রজ।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়- প্রথম পুরস্কার হিসেবে ৩ লাখ টাকা ও ২৫ গ্রাম স্বর্ণখচিত ক্রেস্ট, দ্বিতীয় পুরস্কার হিসেবে ২ লাখ টাকা ও ২০ গ্রাম স্বর্ণখচিত ক্রেস্ট এবং তৃতীয় পুরস্কার হিসেবে ১ লাখ টাকা ও ১৫ গ্রাম স্বর্ণখচিত ক্রেস্ট পাবে প্রতিটি প্রতিষ্ঠান। ১৮ ক্যারেট মানের স্বর্ণ দিয়ে বানানো ক্রেস্টগুলো আনবিক শক্তি কমিশন কর্তৃক স্বর্ণের মান যাচাই করে বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে রাখা হয়েছে। এছাড়া পুরস্কারপ্রাপ্ত সব প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননাপত্র দেওয়া হবে।

শিল্পমন্ত্রী উল্লেখ করেন- বেসরকারি খাতে শিল্প স্থাপন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং বিনিয়োগে উৎসাহ দিতে পুরস্কারটির প্রবর্তন করা হয়েছে। তার আশা, আলোকিত শিল্প উদ্যোক্তাদের পণ্য বহুমুখীকরণ, আমদানিবিকল্প পণ্য উৎপাদন ও শিল্প খাতে সৃজনশীলতার বিকাশে উৎসাহিত করবে এই সম্মাননা।

পাঠকের মতামত: