কক্সবাজার, শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১

আজ শ্যামা পূজা ও দীপাবলি

 

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব শ্যামা পূজা (কালী পূজা) অনুষ্ঠিত হবে আজ বৃহস্পতিবার। কার্তিক মাসের অমাবস্যা তিথিতে সাধারণত এ পূজা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। শ্যামা পূজার দিন পালিত হয় দীপাবলি উৎসব। তবে এবার দেশজুড়ে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার প্রতিবাদে বর্জন করা হয়েছে সকল উৎসব। মাঙ্গলিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে পূজিত হবেন শ্যামা মা। সন্ধ্যায় সকল মন্দির ও পূজা মণ্ডপগুলোতে মুখে কালো কাপড় বেঁধে প্রতীকী প্রতিবাদ জানাবেন পূজার্থীরা।
হিন্দু পুরাণ মতে, কালী দেবী দুর্গারই একটি শক্তি। সংস্কৃত ভাষার ‘কাল’ শব্দ থেকে কালী নামের উৎপত্তি। কালী পূজা হচ্ছে শক্তির পূজা। জগতের সকল অশুভ শক্তিকে পরাজিত করে শুভশক্তির বিজয়ের মধ্যেই রয়েছে কালীপূজার মাহাত্ম্য। কালী দেবী তার ভক্তদের কাছে শ্যামা, আদ্য মা, তারা মা, চামুন্ডি, ভদ্রকালী, দেবী মহামায়া ইত্যাদি নামে পরিচিত। লোকবিশ্বাস অনুযায়ী, কালী শ্মশানের অধিষ্ঠাত্রী দেবী। এই কারণে বিভিন্ন অঞ্চলে শ্মশানে মহাধুমধামে শ্মশানকালী পূজাও অনুষ্ঠিত হয়। কালী পূজার দিন হিন্দুরা সন্ধ্যায় মন্দিরে, বাড়িতে ও শ্মশানে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করবেন। এটিকে বলা হয় দীপাবলী। অসৎ থেকে সৎ পথে, অকল্যাণ ও অশুভ দূরীভূত করে মঙ্গল আলোয় আলোকিত করার অনুষ্ঠান দীপাবলি। তবে এবার বর্জন করা হচ্ছে দীপাবলি উৎসবের। বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় পূজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ সভাপতি শ্যামল কুমার পালিত বলেন, এবার পূজায় সকল উৎসব বর্জন করা হয়েছে। সন্ধ্যা ৬টায় ‘সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াও’ ব্যানারে চট্টগ্রামের ১৫টি উপজেলার প্রতিটি পূজামণ্ডপে মুখে কালো কাপড় বেঁধে প্রতিবাদ জানাবেন ভক্তরা।
মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হিল্লোল সেন উজ্জ্বল বলেন, নগরের প্রধান পূজামণ্ডপ জেএমসেন হলে থাকছে না কোন মায়ের প্রতিমা। মায়ের ঘটে হবে পূজা। কালো কাপড়ে সাজানো হয়েছে পুরো প্যান্ডেল। জে এম সেন হল প্রাঙ্গণ ছাড়াও নগরীর বেশ কয়েকটি মন্দিরে হবে শ্যামা পূজা। এদিকে পূজার পরদিন পালন করা হয় অন্নকুট উৎসব। প্রতিবারের মত এবারও রাউজানের আদ্যপীঠে এ উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।

পাঠকের মতামত: