কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২

উখিয়া প্রধান সড়ক চৌরাস্তার মোড়ে জেব্রা ক্রসিং স্থাপনের দাবি

রিমন মেহেবুব রোহিত,উখিয়া:
কক্সবাজারের উখিয়া টেকনাফ মহাসড়কের উখিয়া ষ্টেশনটি বর্তমানে সর্বাধিক ব্যস্ততম এলাকা। রোহিঙ্গা অধ্যুষিত এলাকা হওয়ায় টেকনাফ থেকে শুরু করে উখিয়ার বিভিন্ন ক্যাম্পে প্রায় হাজারোধিক এনজিও সহ সাধারণ যানবাহন চলাচল করে এই সড়ক দিয়ে। ইদানিংকালে সড়কটি প্রসস্থকরন বৃদ্ধি পাওয়ায় বেপরোয়া গতিতে চলাচল করছে যানবাহনগুলো, যার কারনে এই সড়কে প্রতিনিয়তই ঘটছে দূর্ঘটনা।

এই মহাসড়কের মূল সীমানা ঘেষেই রয়েছে দুটি সরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, উখিয়া সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় ও উখিয়া মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। শংকার বিষয় হলো এই সড়ক দিয়েই আসা যাওয়া করে এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীরা। পড়ালেখার তাগিদে স্কুলে আসা এসব শিক্ষা প্রতিষ্টানের শিক্ষার্থীরা স্কুল ছুটির পর দল বেঁধে রাস্তা পার হতে নেমে পড়ে। কিন্তু পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে অনেক শিক্ষার্থী অনেকটা দূর্ঘটনার মুখ থেকে কোন রকমে বেঁচে বাড়ী ফেরে।

এসব স্কুলের কয়েকজন শিক্ষার্থীর অভিবাবক অভিযোগ করেছেন, সম্পুর্ন নিরাপত্তাহীনতায় নিজের আদরের সন্তানটিকে তারা স্কুলে পাঠায়। তাদের অভিযোগ এতো বড় মহাসড়কে দ্রুতগতিতে অসংখ্য যানবাহন চলাচল করলেও এসব স্কুলের সামনে কোন জেব্রা ক্রসিং বা স্পীড ব্রেকার নেই। এতে তারা নিজ নিজ সন্তানের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে শংকায় থাকেন বলে জানান।

এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে লেখালেখি হলেও স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ হতে আদৌ কোন কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়নি।

উখিয়ার সচেতন মহল মনে করেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্প অধ্যুষিত জনসমাগপুর্ণ এলাকা উখিয়ার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত এই স্কুল দুটিসহ, জনসাধারণের জীবনের নিরাপত্তার স্বার্থে রাস্তা পারাপারের জন্য অতিসত্তর এই মহাসড়কের স্থানটিতে নিরাপত্তামুলক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য জেব্রা ক্রসিং সহ স্পীড ব্রেকার নির্মাণ করা জরুরী। এ বিষয়ে তারা উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার জরুরি হস্থক্ষেপ কামনা করেন।

পাঠকের মতামত: