কক্সবাজার, শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল ২০২১

কক্সবাজারে করোনা উপসর্গে মারা গেলেন আরও দুইজন

আনছার হোসেন::

পর্যটন রাজধানী কক্সবাজারে করোনাভাইরাসে উপসর্গে ভোগে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে একজন ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে মারা যান। অন্যজন কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে মারা গেছেন।

এরা হলেন কক্সবাজার শহরের গাড়ির মাঠ এলাকায় বসবাসকারি চকরিয়ার বাসিন্দা ও আইনজীবী সহকারি মোহাম্মদ ইমরান এবং কক্সবাজার শহরের বাহারছড়ার বাসিন্দা মো. জয়নাল আবেদীন (৫০)। এদের মধ্যে মোহাম্মদ ইমরান কক্সবাজারের শ্রমিক লীগ নেতা নাছির উদ্দিন ওরফে কালা নাছিরের ভগ্নিপতি।

হাসপাতাল ও পারিবারিক সুত্র এই দুইজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পারিবারিক সুত্র মতে, আইনজীবী সহকারি মোহাম্মদ ইমরান করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে গত মঙ্গলবার (৯ জুন) কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি হন। ওখানে দুইদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে তাকে বৃহস্পতিবার (১১ জুন) রাতে বিশেষ এ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। ঢাকার প্রশান্তি জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির পর অবস্থার অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। হাসপাতালের লাইফ সাপোর্টে থাকাকালিন আজ শনিবার (১৩ জুন) সকাল ১১টায় তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

সুত্র মতে, মোহাম্মদ ইমরান করোনার উপসর্গ দেখা দিলে গত পহেলা জুন করোনা টেষ্টের জন্য নমুনা জমা দিয়েছিলেন। দীর্ঘ ১১ দিন পর বৃহস্পতিবার (১১ জুন) সেই রিপোর্ট পাওয়া যায়। তবে সেই রিপোর্ট ছিল নেগেটিভ। কিন্তু মোহাম্মদ ইমরানের স্ত্রী রিনা করোনা ‘পজিটিভ’ ছিলেন। তিনিও স্বামীর সাথে ঢাকায় গিয়েছিলেন। কিন্তু দুইদিন আগে তাকে কক্সবাজার পাঠিয়ে দেয়া হয়।

বর্তমানে স্ত্রী রিনা চকরিয়া আইসোলেশন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

অপরদিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল সুত্র জানান, কক্সবাজার শহরের বাহারছড়ার বাসিন্দা মো. জয়নাল আবেদীন করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে শুৃক্রবার (১২ জুন) কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি হন। তিনি আইসোলেশন ওয়ার্ডের ১৭১ নাম্বার রোগী ছিলেন।

আজ শনিবার (১৩ জুন) সকাল ৭টা ১০ মিনিটে তিনি মারা যান।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের করোনা রোগী দাফন-কাফন কমিটির স্বেচ্ছাসেবক দল জয়নাল আবেদীনের দাফন প্রক্রিয়া করবেন বলেন জানিয়েছেন কমিটির সদস্য ও কক্সবাজার জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা কাজী সিরাজুল ইসলাম ছিদ্দিকী। সুত্র: কক্সবাজার ভিশন

পাঠকের মতামত: