কক্সবাজার, বুধবার, ২৩ জুন ২০২১

অ্যাম্বুলেন্স না পেয়ে মোটরসাইকেলে মায়ের লাশ নিয়ে শ্মশানে

করোনার উপসর্গ নিয়ে নমুনা পরীক্ষা করতে রোগ নির্ণয় কেন্দ্রে গিয়েছিলেন এক নারী। নমুনা দেওয়ার পর পর মারা যান তিনি। এরপর অ্যাম্বুলেন্স জোগাড় করতে না পেরে মোটরসাইকেলে তাঁর মরদেহ নিয়ে শ্মশানে যান ছেলে ও মেয়ের জামাই।

আজ মঙ্গলবার ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে হৃদয়বিদারক এ ঘটনাটি ঘটেছে। এই ঘটনার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, জি চেনচু (৫০) নামের ওই নারী অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীকুলম জেলার মন্দাসা মণ্ডল গ্রামের শ্রীকৃষ্ণ ডায়াগনস্টিক সেন্টারে করোনার পরীক্ষা করাতে যান। নমুনা দেওয়ার পরপর তিনি মারা যান। পরে চিকিৎসকেরা জানান, তাঁর করোনার নানা উপসর্গ আছে। খবর আনন্দবাজার ও ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

জি চেনচুর মরদেহ সৎকারের জন্য বিভিন্ন হাসপাতালে অ্যাম্বুলেন্সের খোঁজ করতে থাকে পরিবার। তবে কোনোভাবেই সেটি জোগাড় করতে পারেননি পরিবারের সদস্যরা। এমনকি, অন্য কোনো গাড়ির মাধ্যমে দেহ শ্মশানের নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থাও করা যায়নি। অবশেষ ওই নারীর মরদেহ মোটরসাইকেলে করে শ্মশানে নিয়ে যান তাঁর ছেলে নরেন্দ্র ও মেয়ের জামাই রমেশ।

উল্লেখ, ভারতের অন্যান্য রাজ্যের মতোই করোনার ছোবলে রীতিমতো ধুঁকছে অন্ধ্রপ্রদেশ। আজ মঙ্গলবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ওই রাজ্যে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন নয় হাজার ৯৮১ জন এবং মারা গেছে ৫১ জন করোনা রোগী।

পাঠকের মতামত: