কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১

উখিয়ার ইয়াবা সম্রাট জামাল অবশেষে পুলিশের জালে আটক

মাদক মামলার ফেরারি আসামি ও ইয়াবা সম্রাট জামাল উদ্দিন অবশেষে পুলিশের জালে আটক হয়েছে। তিনি উখিয়া উপজেলা ট্রাক পিকআপ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক। পরিবহন সেক্টরের নেতা হিসাবে তিনি দীর্ঘ সময় ধরে দেশের বিভিন্ন স্থানে ইয়াবার চালান সরবরাহ করে আসছিল।

হিমছড়ি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মিজানুল হক আটকের বিষয়টি সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন গত শুক্রবার রাতে এস আই ফয়সাল মাসুদ ও এস আই সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান চালিয়ে ইয়াবার মামলার আসামি জামাল উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে। তিনি রামু উপজেলার খুনিয়া পালং ইউনিয়নের প্যাচার দ্বীপ গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে।
পুলিশ আরো জানান গ্রেপ্তারকৃত জামালের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। রামু থানায় মামলা নম্বর জিআর ৩০১/২০ , ৪৮ (৭)২০ চট্টগ্রাম চাঁদগাও থানার সিএমপি মামলা নম্বর ০৮ তারিখ ৭/১০/১৬ এবং কোতেয়ালী থানার জিআর মামলা নম্বর ২২৯/১৯। ইয়াবার চালান পাচার করতে গিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তারকৃতদের স্বীকারোক্তি মতে ইয়াবা সিন্ডিকেট সদস্য জামাল উদ্দিনের নাম মামলার এজাহারে আসামী হিসেব অন্তভূক্ত করা হয়। ইয়াবা মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা মাথায় নিয়ে পুলিশের চোখ ফাকি দিয়ে চলাফেরা করে আসছিল। গ্রেপ্তার এড়াতে মাঝেমধ্যে ভাড়াবাসা পরিবর্তন করে থাকে। অবশেষে পুলিশের জালে আটক হন পরিবহন নেতা ইয়াবা সম্রাট জামাল উদ্দিন।

পুলিশের হাতে আটক জামাল রাতারাতি কিভাবে ধর্নাঢ্য ব্যক্তি হিসেবে খাতায় নাম লেখানোর পিছনে পিলে চমকানোর মত তথ্য বেরিয়ে এসেছে । এক সময়ের ট্রাকের হেলপার জামাল এখন কয়েকটি ট্রাক পিক আপ ও মাইক্রোবাসের মালিক। ট্রাক যোগে ঢাকা চট্টগ্রাম ও সাতক্ষীরা ইয়াবার চালান পাচার করে কালো টাকার মালিক বনে যায়। সে এখন বড় মাপের পরিবহন নেতা। শুধু তাই নই উখিয়া ট্রাক পিক আপ মালিক সমিতির নির্বাচনে পর পর ৩ বার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন জামাল উদ্দিন । নির্বাচনে মাত্রারিক্ত কালো টাকা বিতরণ করে বার বার নির্বাচনে জয়ী হন তিনি।
এ ছাড়াও কক্সবাজার ও কোটবাজারে নামে বে নামে বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি রয়েছে।
সচেতন নাগরিক সমাজ, আটক জামাল কে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞেসাবাদ করে কালো টাকার উৎস সহ ইয়াবা সিন্ডিকেটে জড়িত রাঘববোয়াল দের তথ্য উদঘাটন করার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের নিকট দাবি জানিয়েছেন।

পাঠকের মতামত: