কক্সবাজার, সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১

এ বছর মহামারি আরও মারাত্মক হবে: ডব্লিউএইচও

এক বছরেরও বেশি সময় ধরে বিশ্বব্যাপী তাণ্ডব চালাচ্ছে মহামারি করোনাভাইরাস। এরইমধ্যে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রভাবে বিশ্বের বেশ কিছু দেশ পরিস্থিতি সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে। এমন প্রেক্ষাপটে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নতুন দুঃসংবাদ দিয়ে সতর্ক করে জানিয়েছে, করোনা প্রথম বছরের চেয়ে দ্বিতীয় বছরে আরও ভয়ঙ্কর রূপ নেবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম ঘেব্রেয়েসুস বলেন মহামারির দ্বিতীয় বছর প্রথম বছরের চেয়ে মারাত্মক হবে। সুতরাং মানুষকে আরও সতর্ক হতে হবে।

ভারতের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বেশ উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ভারতের কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বেশ উদ্বেগজনক, কিছু রাজ্যের সংক্রমণ মারাত্মক রূপ নিচ্ছে, প্রত্যেকদিন হাজার হাজার মানুষ হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। হাসপাতালে আসা মানুষের মৃত্যুর ঘটনাও বাড়ছে। এটিই বিশ্বের জন্য উদ্বেগের।

তিনি জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনার বিরুদ্ধে লড়তে ভারতকে সহায়তা করছে এবং অক্সিজেন কন্সেন্ট্রেটর, অস্থায়ী হাসপাতালের জন্যে হাজার হাজার মাস্ক এবং অন্যান্য চিকিৎসা সামগ্রী সরবরাহ করছে। এদিন তিনি ভারতে সাহায্য করার জন্যে অন্যান্য দেশকে ধন্যবাদও জানান।

এদিকে ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, শনিবার (১৫ মে) সকাল পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ৩৩ লাখ ৭১ হাজার ৩৫ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ কোটি ২৫ লাখ ২৪ হাজার ৪২৮ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৪ কোটি ১৪ লাখ ৫৪ হাজার ৬৭৩ জন।

বিশ্বে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৫ লাখ ৯৯ হাজার ৩১৪ জনের প্রাণ নিয়েছে করোনা। এছাড়া সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে ৩ কোটি ৩৬ লাখ ৬৪ হাজার ১৩ জনের দেহে।

যুক্তরাষ্ট্রের পর করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ ভারত। এশিয়ার মধ্যেও করোনায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত দেশটি। ভারতে এখন পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২ কোটি ৪৩ লাখ ৭২ হাজার ২৪৩ জন। মারা গেছেন ২ লাখ ৬৬ হাজার ২২৯ জন।

পাঠকের মতামত: