কক্সবাজার, সোমবার, ২১ জুন ২০২১

কক্সবাজারে ১ থেকে ৭ এপ্রিল পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু ৫

১ এপ্রিল থেকে ৭ এপ্রিল পর্যন্ত কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আইসিইউতে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে ৫ জন মারা গেছে বলে জানা গেছে।

এদের মধ্যে ১জন চকরিয়া, ১ জন ঈদগাহ, ১জন সদর ঝিলংজা, ১ জন কলাতলী, ১ জন রংগীখালী টেকনাফ। এই ৫ জনের ৩ জন মহিলা ও ২ জন পুরুষ।

বুধবার ৭ এপ্রিল কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে ৬৩৮ জনের নমুনা টেস্ট করে ৫৮ জনের টেস্ট রিপাের্ট পজেটিভ’ পাওয়া গেছে। বাকী ৫৮০ জনের নমুনা টেস্ট রিপাের্ট ‘নেগেটিভ’ আসে।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ট্রপিক্যাল মেডিসিন ও সংক্রামক ব্যাধি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. শাহজাহান নাজির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন এবারের মৃত্যু গুলো গতবারের চেয়ে একটু অমিল রয়েছে, যেমন গতবছর শহরের রোগীদের মৃত্যুর হার বেশী ছিল, এবার গ্রামের রোগী। গতবার পুরুষ বেশী ছিল এবার মহিলা। যদিও ৫ জন দিয়ে এই ইনফারেন্স ড্র করা যায় না।

আইসিইউতে ভর্তি রত আরো ৮ জন রোগী ক্রিটিকাল অবস্থায় আছেন। তিনি সবাইকে আরো সচেতন হতে বলেন এবং আল্লাহ কাছে ফরিয়াদ করতে বলেন আল্লাহ যেন আমাদেরকে মাক্সে সীমাবদ্ধ রাখেন, ভেন্টিলেটরে যেন যেতে না হয়।

বুধবার শনাক্ত হওয়া ৫৮ জন করােনা রােগীর মধ্যে ১ জন আগে আক্রান্ত হওয়া পুরাতন রােগীর ফলােআপ টেস্ট রিপাের্ট। অবশিষ্ট ৫৭ জন করােনা শনাক্ত হওয়া নতুন রােগীর সকলেই কক্সবাজারের রােগী।

তারমধ্যে, কক্সবাজার সদর উপজেলায় ২৬ জন, রামু উপজেলায় ৩ জন, উখিয়া উপজেলায় ১৪ জন, টেকনাফ উপজেলায় ৪ জন, চকরিয়া উপজেলায় ৬ জন, কুতুবদিয়া উপজেলায় ১ জন এবং মহেশখালী উপজেলার ৩ জন রােগী
রয়েছে।

৭ এপ্রিল পর্যন্ত কক্সবাজার জেলায় করােনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হলাে-মােট ৬ হাজার ৮ শত ৮৯ জন। কক্সবাজার জেলায় করােনা আক্রান্ত রােগীর মধ্যে শুধু সদর উপজেলার রােগী রয়েছে ৩৩৭৯ জন। যা জেলার মােট আক্রান্তের প্রায় অর্ধেক।

এরমধ্যে, গত ৬ এপ্রিল পর্যন্ত করােনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে জেলায় মৃত্যুবরণ করছে ৮৬ জন। তারমধ্যে, ১০ জন রােহিঙ্গা শরনার্থী। আক্রান্তের তুলনায় মৃত্যুর হার ১৩৬%।

এদিকে, গত ৬ এপ্রিল পর্যন্ত কক্সবাজার জেলায় করােনা ভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে ৫ হাজার ৯৭৭ জন রােগী সুস্থ হয়েছেন। আক্রান্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৮৭৪৭%।

আক্রান্তদের মধ্যে গত ৬ এপ্রিল পর্যন্ত হােম আইসােলেসনে রয়েছেন ৫৪৮ ও প্রাতিষ্ঠানিক আইসােলেসনে রয়েছেন ১৫২ জন।

তারমধ্যে, কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের আইসােলেসনে রয়েছেন ৩৬ জন, রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসােলেসনে রয়েছেন ৩ জন, ফ্রেন্ডশিপ SARI হাসপাতালে রয়েছেন ১৫ জন, রােহিঙ্গা ১২ জন।

পাঠকের মতামত: