কক্সবাজার, রোববার, ৩ মার্চ ২০২৪

কক্সবাজারে ২৪ হাজার নারী-যুবকের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হচ্ছে’

আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে নতুন প্রকল্পের মাধ্যমে কক্সবাজারে ২৪ হাজার কর্মক্ষম নারী ও যুবদের নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল।

 

মঙ্গলবার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কক্সবাজারের একটি তারকামানের হোটেলে আইএলও বাংলাদেশ এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত এই প্রকল্পের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ তথ্য জানান প্রতিমন্ত্রী।

 

তিনি বলেন, কক্সবাজার জেলার নারী ও যুবগোষ্ঠীর সার্বিক উন্নয়নে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার সার্বিক সহায়তায় কানাডা ও নেদারল্যান্ড সরকারের অর্থায়নে প্রকল্পটি ২০২৫ সালের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বাস্তবায়ন করবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে কক্সবাজারের ১৮-৩৫ বছর বয়সী ২৪ হাজার কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থান ও আত্ম-কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। যা কক্সবাজারের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।

 

প্রকল্প উদ্বোধনকালে কক্সবাজারের স্থানীয় জনগোষ্ঠীর স্থিতিস্থাপকতা তৈরির প্রচেষ্টাকে সমর্থন করতে পেরে আনন্দিত বলে জানায় বাংলাদেশে নিযুক্ত কানাডার হাইকমিশনারের প্রতিনিধি কাউন্সিলর ভিভেক প্রকাশ ও নেদারল্যান্ডসের অ্যাফেয়ার্স অফ দ্যা কিংডম থিজ ওয়াউডস্টা চার্জ ডি।

 

আইএলও বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর তুওমো পাউটিয়ানেন বলেন, কর্মজগত দ্রুত পরিবর্তিত হচ্ছে এবং বাংলাদেশের সকল মানুষকে, বিশেষ করে নারী ও যুবকদের অবশ্যই এমন দক্ষতায় সজ্জিত করতে হবে। যা তাদেরকে সফল ব্যবসা শুরু করার পাশাপাশি বর্ধিত স্বয়ংক্রিয়তা, ডিজিটালাইজেশন এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ফলে সৃষ্ট কাজের সুযোগের সুবিধা নিতে সক্ষম করবে।

 

অনুষ্ঠানে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মহিউদ্দিন আহমেদ, মহাপরিচালক মো. আজহারুল ইসলাম খান, কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ শাহীন ইমরান, কক্সবাজার চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আবু মোরশেদ চৌধুরী, এনসিসি প্রতিনিধি নাইমুল আহসান জুয়েল বক্তব্য রাখেন। এ সময় ব্র্যাক, এফএও এবং ইউএনডিপির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মতামত: