কক্সবাজার, সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১

কক্সবাজারে ৪ শতাধিক গ্রাম প্লাবিত

টানা বর্ষণে কক্সবাজার জেলার ৯ উপজেলার ৪১ ইউনিয়নের ৪ শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। পানিবন্দি হয়ে আছে দেড় লক্ষাধিক মানুষ। আশ্রয়কেন্দ্রে নেওয়া হয়েছে ৭ হাজার ৬৫ পরিবারের অন্তত ৬০ হাজার মানুষকে।

বুধবার (২৮ জুলাই) রাত সাড়ে আটটার দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ। তিনি বলেন, গেল ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজারে প্রাণ গেছে ২০ জনের। বন্যাদুর্গত এলাকার মানুষের জন্য ১৫০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ, ৫ লাখ নগদ অর্থ, মৃতদের ২৫ হাজার করে নগদ অর্থ দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এছাড়া পাহাড়ে ঝুকিপূর্ণ এলাকায় বসবাসরতদের সরিয়ে আনতে জেলা প্রশাসনের একাধিক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে অভিযান চলছে। এখন পর্যন্ত জেলার ৬০ হাজার মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে আনা হয়েছে। তাদের সেখানে খাবার সরবারহ করা হচ্ছে।

কক্সবাজার আবাহাওয়া দফতরের সহকারী আবাহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান বলেন, টেকনাফে ৩২৮ মিলিমিটার বৃষ্টি, সদর উপজেলায় ১১৫, কুতুবদিয়ায় ১২৫, মহেশখালীতে ১৩২ মিলিমিটার বৃষ্টির রেকর্ড করা হয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টাও মাঝারি থেকে ভারী বর্ষণের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ডেপুটি কমিশনার (নেজারত) জাহিদুল ইসলাম বলেন, পানিবন্দি ও পাহাড়ে বসবাসরত ঝুঁকিতে থাকা মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়কেন্দ্রে নেওয়া হয়েছে ও হচ্ছে। রান্না করা খাবার দেওয়া হচ্ছে।

৮ হাজারের বেশি স্বেচ্ছাসেবক কাজ করছেন। এছাড়া পুলিশসহ অন্যরাও সহযোগিতা করছেন। এদিকে, বন্যাকবলিত এলাকার পরিস্থিতি পর্যাবেক্ষণ করতে কক্সবাজারে এসেছেন চট্টগ্রাম বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার কামরুল হাসান।

পাঠকের মতামত: