কক্সবাজার, রোববার, ৩ মার্চ ২০২৪

কাল থেকে বাতিল হচ্ছে মোবাইল ইন্টারনেটের স্বল্পমেয়াদি প্যাকেজ

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে প্রায় ৭০ শতাংশ মোবাইল ফোন গ্রাহকের পছন্দের তিন দিনের ইন্টারনেট প্যাকেজ। রোববার (১৫ অক্টোবর) থেকে এই ব্যবস্থা কার্যকর করছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

বিটিআরসি গত ১৭ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে ৩ দিনের ও ১৫ দিনের মোবাইল ইন্টারনেট প্যাকেজ বাতিলের সিদ্ধান্ত জানায়। এতদিন যারা ৫০ থেকে ৬০ টাকার মধ্যে বিভিন্ন অপারেটরের তিনদিন মেয়াদি প্যাকেজ কিনতেন, তাদেরকে বাধ্য হয়েই এখন ১৫০ থেকে ১৭০ টাকার সাতদিনের প্যাকেজ কিনে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হবে।

বিটিআরসির তথ্যমতে, দেশে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১০ কোটি। এর মধ্যে ৭০ শতাংশ গ্রাহক তিনদিন মেয়াদি প্যাকেজ ব্যবহার করেন। কম দামে মোবাইল ইন্টানেট ব্যবহারের সুযোগ বন্ধ হওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেছেন গ্রাহকরা।

nagad
এক মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারী এ বিষয়ে বলেন, ‘আমি একজন ছাত্র। এই সিদ্ধান্ত সরাসরি আমার ইন্টারনেট ব্যবহারের ওপর প্রভাব ফেলবে। আগে ৫৮ টাকায় দুই জিবি ইন্টারনেট প্যাকেজ কিনতাম, তিনদিন চলতো। এখন সাতদিন মেয়াদি প্যাকেজ কিনতে গেলে ১৬০ থেকে ১৭০ টাকা খরচ হবে।’

রাজধানীর এক মোবাইল রিচার্জের দোকানদার বলেন, ‘৪৪ থেকে ৪৬ টাকারও কিছু প্যাক ছিল। এগুলো মূলত শিক্ষার্থী ও নিম্ন আয়ের মানুষ কিনতো। আমার কাছে রিকশাচালক ও স্বল্প বেতনের চাকরিজীবীরা এই প্যাকটি বেশি নিতো। এখন নতুন সিদ্ধান্ত কার্যকর হলে অন্তত ১০০ টাকা খরচ বাড়বে এসব মানুষের।’

অপারেটরদের অভিমত, বিটিআরসির এমন সিদ্ধান্তে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে সরকারের রাজস্ব আয়ে। পাশাপাশি কম দামে ইন্টারনেট সেবা না থাকায় নিন্ম আয়ের মানুষ ডিজিটাল সেবা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়তে পারে।

অ্যামটবের মহাসচিব লে. কর্নেল (অব.) মোহাম্মদ জুলিফিকার বলেন, ‘অল্প টাকায় কানেকটেড থাকার যে সুযোগ ছিল, এর ফলে আমরা সেটি হারাবো। ৫০ টাকায় আমি যে সেবা পেতাম, এখন সে সেবা নিতে যদি ১৫০ টাকা খরচ করতে হয়, তাহলে দেশের আর্থসামাজিক অবকাঠামোতে স্বল্প আয়ের মানুষেরা দ্বিধান্বিত হবে। তারা ভাববে, এখন এই প্যাকেজ কিনবে কি, কিনবে না। গ্রাহকরা এখন অনেক বিবেচনা করে হয়তো কিনবে। স্বাভাবিকভাবে এতে গ্রাহক সংখ্যা কমবেই।’

তবে টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলছেন, অপারেটরদের অতিরিক্ত প্যাকেজে গ্রাহক বিভ্রান্ত হচ্ছেন। তাই গ্রাহকদের স্বার্থেই এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এতে ব্যবহারকারী কমে যাবে কেনো এমন প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, যে লোক তিনদিনের জন্য নিতে পারবে সে সাতদিনের জন্য নিতে পারবে না? মানুষ যেটা পছন্দ করে সেটা হলো, কোনো মেয়াদ নেই, আনলিমিটেড দেন। আমি টাকা দিয়ে ডেটা কিনছি, আমার যতোদিন মন চায় ততোদিন ব্যবহার করবো।

উল্লেখ্য, বিটিআরসির নতুন নির্দেশিকা অনুযায়ী অপারেটররা কেবলমাত্র ৭ দিন, ৩০ দিন এবং আনলিমিটেড ডেটা প্যাকেজ বিক্রি করতে পারবেন।

পাঠকের মতামত: