কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১

ঘুমধুম ৩৪ বিজিবির অভিযানে ৫০হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার!

 

শাহেদ হোছাইন মুবিন, উখিয়া :
বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর কক্সবাজার ব্যাটালিয়নের ঘুমধুম বিওপি কর্তৃক ১,৫০,০০,০০০/- (এক কোটি পঞ্চাশ লক্ষ) টাকা মূল্যের ৫০,০০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মাদকের বিরুদ্ধে “জিরো টলারেন্স” নীতি ঘোষণার প্রেক্ষিতে করোনা ভাইরাস এর মহামারির মধ্যেও বিজিবি তাদের নিজ কর্তব্যে অটুট থেকে দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় বিশেষ মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করছে। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার ( ১৬ নভেম্বর ২০২১) বিজিবি’র কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন (৩৪ বিজিবি) এর অধীনস্থ ঘুমধুম বিওপির সদস্যগণ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কতিপয় ইয়াবা ব্যবসায়ী বিপুল পরিমাণ ইয়াবা নিয়ে মায়ানমার হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে ঘুমধুম বিওপির একটি চৌকস আভিযানিক টহলদল কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলার ৫নং পালংখালী ইউপির কাস্টমস মোড় নামক স্থানে কৌশলগত অবস্থান নিয়ে ফাঁদ পেতে থাকে। পরবর্তীতে আনুমানিক ১৯০০ ঘটিকায় কতিপয় ইয়াবা পাচারকারীরা বিজিবি টহলদলের উপস্থিতি অনুধাবনের পাশাপাশি গ্রেপ্তার হওয়ার সম্ভাবনা আঁচ করতে পেরে সশস্ত্র ইয়াবা পাচারকারীরা বিজিবি টহল দলের উপর অতর্কিতভাবে গুলি বর্ষণ করতে থাকে। এমতাবস্থায় টহলদল কৌশলগত অবস্থান গ্রহণ করতঃ তাদের জান-মাল, অস্ত্র-গোলাবারুদ এবং সরকারী সম্পদ রক্ষার্থে চোরাকারীরদের লক্ষ্য করে পাল্টা ফায়ার করলে চোরাকারবারীরা তাদের সাথে থাকা ব্যাগ মাটিতে ফেলে দ্রুত পাহাড়ী গহীন জঙ্গলের মধ্য দিয়ে মায়ানমারের দিকে পালিয়ে যায়।

৩৪ বিজিবির অধিনায়ক আলী হায়দার আজাদ আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন চোরাকারবারীদের ফেলে যাওয়া ব্যাগ তল্লাশী করে আনুমানিক ৫০,০০০ (পঞ্চাশ হাজার) পিস বার্মিজ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়, যার আনুমানিক সিজার মূল্য-১,৫০,০০,০০০/- (এক কোটি পঞ্চাশ লক্ষ) টাকা।

এ ব্যাপারে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন (৩৪ বিজিবি) এর দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় গত ০১ জানুয়ারি ২০২১ হতে অদ্যাবধি পর্যন্ত চোরাচালান ও মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে বিজিবি টহলদল কর্তৃক ১২৫,২৭,৮২,৬০০/- (একশত পঁচিশ কোটি সাতাশ লক্ষ বিরাশি হাজার ছয়শত) টাকা মূল্যের ৪১,৭৫,৯৪২ পিস বার্মিজ ইয়াবাসহ ১৯৫ জন আসামী আটক করে।

পাঠকের মতামত: