কক্সবাজার, বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১

চকরিয়ায় মার্কেটে ক্রেতা সেঁজে ইউএনও’র অভিযানে ৯ মামলা

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত উপজেলার সকল হাট-বাজার এবং দোকানে বেচাকেনার সময় সকাল ৬টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত নির্ধারণ করেছে।

বুধবার চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বাজার কমিটির সাথে বৈঠকে চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম, সেনাবাহিনীর কর্ণেল জোবায়ের, ইউএনও সৈয়দ শামসুল তাবরীজ, চকরিয়া পৌরসভার মেয়র আলমগীর চৌধুরীর উপস্থিতিতে সবার সম্মতিক্রমে নতুন সময়সুচি নির্ধারণ করা হয়েছে।

এরই আলোকে বাজার মনিটরিংয়ে প্রশাসনের কর্মকর্তা ও বাজার সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশ দিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।

চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের নতুন সময়সুচি মোতাবেক দোকানপাট যথাসময়ে বন্ধ করা হচ্ছে কী কিনা তা মাঠপর্যায়ে মনিটরিং কার্যক্রম শুরু করেছেন ইউএনও সৈয়দ শামসুল তাবরীজ। এরই অংশহিসেবে বুধবার ১৩ মে সন্ধ্যা সাতটা থেকে রাত এগারটা পর্যন্ত তিনি বাজার মনিটরিং কার্যক্রম দেখভাল করেছেন।

অভিযানের শুরুতেই তিনি বিভিন্ন মার্কেটে ক্রেতা সেঁজে অভিযান চালান। এমনকি রাত ১০টার দিকে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে দোকান খোলা রাখায় মালুমঘাট স্টেশনস্থ স্মার্ট ফ্যাশন নামের একটি দোকানে অভিযান পরিচালনা করেছে। ওইসময় সরকারি নির্দেশনা লঙ্ঘনের অপরাধে দোকানীকে জরিমানা করা হয়েছে।

এদিন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সৈয়দ শামসুল তাবরীজ সন্ধা ৭ টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ এর বিস্তার রোধে চকরিয়া পৌরসভার চিরিংগা কাচাবাজার, হালকাকারা, কোচপাড়া, মগবাজার, মৌলভীকুম বাজার, মালুমঘাট পুলিশ ফাড়ি স্টেশন, ডুলাহাজারা বাজারে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়। ওইসময় আদালত বিভিন্ন দোকানীকে মোট ৯টি মামলায় ২১ হাজার পাঁচশত জরিমানা করেছেন।

পাঠকের মতামত: