কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪

দাম কমেছে সব ধরনের সবজির

সারাবছর বাজারে সবজির দাম নিয়ে অসন্তোষ ছিলেন ক্রেতারা। চড়া মূল্যে সবজি বিক্রি হওয়ায় ক্রেতাদের মধ্যে ছিল চাপা ক্ষোভ। তবে, বাজারে রবি শস্য আসতে শুরু করায় কিছুটা স্বস্তি মিলছে সবজির বাজারে। অন্যান্য সময়ের চেয়ে তুলনামূলকভাবে দাম কমেছে সব ধরনের সবজির।

শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, কিছুটা কমেছে সব ধরনের সবজির দাম। তবে বাজারে এখন সবচেয়ে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে টমেটো, বরবটি, পেঁয়াজের ফুলকি ও কচুমুখী। এছাড়া, অন্যান্য সবজির দাম তুলনামূলক সহনীয় রয়েছে।

বাজারে প্রতি কেজি গোল বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকায়, মুলা প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকায়, শিম প্রতি কেজি ৬০ টাকা, ফুলকপি প্রতি পিস ৪০ টাকা, বাঁধা কপি প্রতি পিচ ৪০ টাকা, মিস্টি কুমড়া প্রতি কেজি ৪০ টাকা, কাঁচা মরিচ প্রতি কেজি মানভেদে ৮০ থেকে ১৫০ টাকা, পটল প্রতি কেজি ৬০ টাকা, শসা প্রতি কেজি ৬০ টাকা, বরবটি প্রতি কেজি ৮০ টাকা, পেঁয়াজের ফুল প্রতি কেজি ৬০ টাকা, শালগম প্রতি কেজি ৫০ টাকা ও ঢেঁড়স প্রতি কেজি ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া কচুমুখী প্রতি কেজি ১০০ টাকা, করলা প্রতি কেজি ৬০ টাকা, টমেটো প্রতি কেজি ১৬০ টাকা, কাঁচা টমেটো প্রতি কেজি ৫০ টাকা, পেঁপে প্রতি কেজি ৩০ টাকা ও গাজর প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়।

রাজধানীর উত্তর বাড্ডা বাজারে আসা এক ক্রেতা বলেন, বাজারে সব ধরনের মাছ-মাংসের দাম বাড়তি হলেও আজ সবজির দাম কমেছে। এমন দাম থাকলে তাও কিছু কিছু সবজি আমরা কিনে খেতে পারি। আজ দাম কম পেয়ে সবজি কিনেছি ঠিকই, কিন্তু সব ধরনের মাছ ও মাংসসহ নিত্যপণ্যের দাম এখনো বেশি। সেগুলো কিনতে হিমশিম খেতে হয়। তবে ভালো বিষয় হলো এই শীতের সময় এসে সবজির দাম অনেকটা কমেছে।

আরেক ক্রেতা বলেন, মূলত শীত মৌসুম আসায় আগের তুলনায় সব ধরনের সবজির দাম কমেছে। শীত আসার সঙ্গে সঙ্গে অন্যান্য সবজির দাম আরও কমে যাবে। এখন দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ঢাকায় প্রচুর পরিমাণে সবজি আসছে, তাই দাম কমেছে। তবে হরতাল ও অবরোধের কারণে পরিবহন খরচ কিছুটা বাড়তি যাচ্ছে, এটা না হলে সবজির দাম কম থাকত। তবে বর্তমানে সবজি দাম যেমন কম আছে, পুরো শীত মৌসুমেও এমন কমই থাকবে।

পাঠকের মতামত: