কক্সবাজার, রোববার, ২৮ নভেম্বর ২০২১

বনে আগুন দেয়ায় ২৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

সিরিয়ার বনে আগুন দেওয়ার দায়ে দোষী সাব্যস্ত ২৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। এ ঘটনায় আরও ১১ জনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির বিচার মন্ত্রণালয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে গতকাল বৃহস্পতিবার দেয়া এক বিবৃতিতে তারা এসব তথ্য জানায়। গত বছর ভয়াবহ দাবানলে সিরিয়ার উত্তরপশ্চিমাঞ্চলের বিস্তৃর্ণ এলাকাপুড়ে গিয়েছিল।

যারা দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন তাদের কর্মকাণ্ডে প্রাণহানি, সরকারি-বেসরকারি সম্পত্তি, স্থাপনা, কৃষিজমি ও বনের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে অগ্নিসংযোগের বদলে সন্ত্রাসবাদে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়েছিল বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার।

বুধবার দোষীদের সাজা ঘোষিত হয়; কঠোর এই সাজা গত ১০ বছর ধরে দেশটিতে চলা গৃহযুদ্ধের নির্মমতা দেখা মানবাধিকার কর্মীদেরও স্তম্ভিত করে দিয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে নিউইয়র্ক টাইমস।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের সিরিয়া বিষয়ক এক গবেষক সারা কাইয়ালি বলেছেন, ‘নিজের ও সরকারের জনপ্রিয়তা বাড়ানোর উদ্দেশ্যেই সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ দাবানলে জড়িত থাকার দায়ে ২৪ জনকে ‍মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন।’

তিনি জানান, গত বছর সিরিয়ার উত্তরপশ্চিমাঞ্চলের যেসব এলাকায় দাবানল ছড়িয়ে পড়েছিল, তার বেশিরভাগই ছিল আসাদের অনুগত এলাকা। এসব এলাকার লোকজন সামান্য হলেও সরকারের সমালোচনা করতে পারে।

‘গত শরতে আগুন যখন একের পর এক এলাকায় ছড়িয়ে পড়ছিল, বাড়িঘর, ফসল ও বনের ক্ষতি করছিল, অনেকেই তখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সরকারের ব্যর্থতা এবং ক্ষতিগ্রস্তদেরর নামমাত্র ক্ষতিপূরণ দেওয়ার তীব্র সমালোচনা করেছিলেন,’ বলেন কাইয়ালি।

২৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করে দাবানল ও এর ফলে হওয়া ক্ষয়ক্ষতি যে তার কাছে অধিক গুরুত্ব পেয়েছে আসাদ সম্ভবত অনুগতদের এটাই বোঝাতে চেয়েছেন, বলেছেন তিনি।

পাঠকের মতামত: