কক্সবাজার, বুধবার, ৪ আগস্ট ২০২১

ভাসানচর থেকে পালিয়ে আসা ২০ রোহিঙ্গা মিরসরাইয়ে গ্রেপ্তার

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে নোয়াখালীর ভাসানচর থেকে পালিয়ে আসা ২০ রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও শিশুকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার (১৭ জুলাই) ভোর সাড়ে ৫টার নাগাদ ভাসানচর শরনার্থী ক্যাম্প থেকে বঙ্গোপসাগরের সন্দ্বীপ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে পালানোর সময় উপজেলার বঙ্গবন্ধু শিল্পনগর এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, মো. আব্দুর রহমান (২৭), সেঁতারা বেগম (২০), মো. সাব্বির (২৬), সঞ্চিতা বেগম, রাজিয়া বেগম (২৩), নুরুল করিম (২০), সালমা খাতুন (৫০), জামাল হোসেন (২৪), নূর কায়দা (২৫), রুমানা (৬), নূর ফাতেমা (৩), মো. আয়াজ (৮), জান্নাত আরা (৪), কিছমত আরা বেগম (২), মরিয়ম (৮), আবুল কাশেম (৭), ওসমান গণি (৮ মাস), মো. আয়াত (৪), জান্নাত আরা (১) ও সেতারা (৫)।

বিষয়টি নিশ্চিত করে মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) হেলাল উদ্দিন ফারুকি।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তার রোহিঙ্গারা নোয়াখালীর ভাসানচর থেকে ট্রলার রিজার্ভ করে মিরসরাইয়ের অর্থনৈতিক জোন এলাকায় এসে নামেন। সেখান থেকে তাদের টেকনাফের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যাওয়ার কথা ছিল। পরে স্থানীয়দের কাছ থেকে সংবাদ পেয়ে তাদের গ্রেপ্তার করে থানায় নেওয়া হয়েছে। তারা কার সহযোগিতায় ভাসানচর থেকে পালিয়েছেন তা জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।

আটক রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জোরারগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন পরিদর্শক হেলাল উদ্দিন ফারুকী।

ভাসানচর থেকে রোহিঙ্গাদের পালাতে কারা সাহায্য করেছে এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দালালরা বিভিন্ন জায়গার। গ্রেপ্তারকৃত রোহিঙ্গারা তাদের নাম বলতে পারছেন না। তবে আমরা ধারণা করছি নোয়াখালী, কক্সবাজার ও টেকনাফের দালালদের যোগসাজশে তারা ভাসানচর থেকে পালিয়েছেন। এর পেছনে কারা জড়িত তাদের খুঁজে বের করতে কাজ করছে পুলিশ।

পাঠকের মতামত: