কক্সবাজার, শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

ইউপি নির্বাচন

মহেশখালী ৩ ইউনিয়নে ভোটারদের মধ্যে উৎসাহ, কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ শঙ্কিত ভোটাররা

এ,এম হোবাইব সজীব, মহেশখালী::

মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী, হোয়ানক ও কুতুবজোম ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন আগামী ২০ সেপ্টেম্বর। এ নিয়ে এই তিন ইউপির নির্বাচনী এলাকার নতুন ভোটারদের মধ্যে রয়েছে উৎসাহ। অন্যদিকে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র নিয়ে উৎকণ্ঠা রয়েছে প্রবীণ ভোটার ও প্রার্থীদের মধ্যে।

মহেশখালী নির্বাচন কর্মকর্তা জুলকার নাঈম বলেন, কোনটি ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র তদারকি করবেন সরকারি বিভিন্ন গোয়ান্দা সংস্থা। আর ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র নিয়ে কোন প্রার্থী লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পাওয়া গেলে খতিয়ে দেখা হবে। তবে প্রতিটি কেন্দ্রে পর্যাপ্তসংখ্যক লোকবল নিয়োগ করা হবে, যাতে শান্তিপূর্ণ ভোট গ্রহণ হয়। কোন প্রার্থী পেশি শক্তি দেখানোর চেষ্টা করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মাতারবাড়ী ৫ জন, হোয়ানক ৫ জন ও কুতুবজোম ৩জনসহ ১৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মাতারবাড়ী ইউনিয়নের নতুন ভোটার আনছার বলেন, ‘এবার প্রথমবার ভোট দেব। জনপ্রতিনিধি নির্বাচনে ভূমিকা রাখব—এটা ভাবতেই আনন্দ লাগছে। আশা আছে, নির্বাচিত প্রতিনিধি এলাকার উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।’ একই ইউনিয়নের আরেক ভোটার কপিল ও প্রত্যাশা সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট। তবে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র নিয়ে উৎকণ্ঠা আছে। মাতারবাড়ী,হোয়ানক ও কুতুবজোমের চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীরা।

মাতারবাড়ী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এনামুল হক চৌধুরী রুহুল বলেন, ইতিমধ্যে আমার পক্ষের ভোটারদের অন্য প্রার্থীর লোকজন ও প্রার্থীরা হুমকি দিচ্ছে। তাঁদের ভোটকেন্দ্রে যেতে নিষেধ করা হচ্ছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। ফলে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা রয়েছে। তিনি বর্তমানের সরকারের কাছে সুষ্ট নির্বাচনের জোর দাবি জানান। একই দাবী জানান বর্তমান চেয়ারম্যান ও বিদ্রোহী প্রার্থী মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ।
মাতারবাড়ী ইউনিয়নের উত্তর রাজঘাটের বাসিন্দা মোহাম্মদ জসিম বলেন,‘প্রার্থীর সমর্থকদের নানামুখী তৎপরতায় আমরা শঙ্কিত। ভোট কেন্দ্রে যাওয়া নিরাপদ মনে করছি না।’ অপরদিকে হোয়ানক ইউনিয়নে ক্ষোধ ক্ষমতাসীন দলের মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান নৌকার মাঝি মোস্তফা কামাল বলেন,কেন্দ্রে বিদ্রোহী প্রার্থীরা পেশি শক্তি প্রয়োগ করে ভোট ডাকাতির মত ঘটনা ঘটবে বলে শঙ্কায় রয়েছেন। তিনি সুষ্ঠ নির্বাচনের দাবি জানান।

মাতারবাড়ী ইউনিয়নের ভোট কেন্দ্রের মধ্যে সব কটি কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীদের অনেকে। তাঁদের আশঙ্কা, ২০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠেয় এই নির্বাচনে ভোট কেন্দ্র দখলের চেষ্টা হতে পারে। এছাড়া একই অভিযোগ হোয়ানক ইউনিয়নে নৌকার প্রার্থী মোস্তফা কামালের তিনি ও ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র নিয়ে শঙ্কিত। অপরদিকে কুতুবজোম ইউনিয়নের কেন্দ্র গুলি ঝুঁকিপূর্ণ বলছেন বিদ্রোহী প্রার্থীদের একজন নুরুল আমিন খোকা ।
প্রসঙ্গত: আগামী ২০ এপ্রিল অনুষ্টিত হবে মহেশখালী ৩ ইউপি নির্বাচন। ৩ ইউপিতে এনালগ পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ হবে।

মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহফুজুর রহমান জানান, দীর্ঘদিন পর এ নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু ও দলীয় প্রভাবমুক্ত হয়, সে জন্য প্রশাসন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে। শান্তিপূর্ণ নির্বাচন উপহার দিব। ###
এ.এম হোবাইব সজীব,মহেশখালী
মোবাইল,০১৮১৫-০৬৪৩৭২
তারিখ,০৯.০৯.২০২১ ইং

পাঠকের মতামত: