কক্সবাজার, শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪

সহযোগিতার আহ্বান বাংলাদেশের

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা চালাতে তহবিল চায় গাম্বিয়া

রোহিঙ্গাদের ওপর মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে (আইসিজে) মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা চলমান রাখতে তহবিল চাহিদার কথা জানিয়েছে গাম্বিয়া। এ জন্য পশ্চিম আফ্রিকার দেশটিকে আর্থিক সহযোগিতা করতে মুসলিম বিশ্বের জোট ওআইসিভুক্ত দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ। আজ শনিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, গত শুক্রবার মৌরিতানিয়ার রাজধানী নোয়াকচটে ওআইসির ৪৯তম পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের ওপর মানবাধিকার লঙ্ঘনের জবাবদিহিতার বিষয়েও অনুষ্ঠিত হয় ওআইসির মন্ত্রী পর্যায়ের অ্যাডহক কমিটির বৈঠক। ওই বৈঠকে গাম্বিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের ওপর মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে আইসিজেতে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে চলমান মামলার হালনাগাদ তথ্য তুলে ধরেন। মামলা চালাতে ওআইসি সদস্যদের আর্থিক সহযোগিতা এবং তহবিল চাহিদার বিষয়টিও তুলে ধরেন তিনি।

বৈঠকে অংশ নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, রোহিঙ্গা সংকটের টেকসই সমাধানে ওআইসি সদস্যদের অবশ্যই দায়িত্ব নিতে হবে। রোহিঙ্গারা যাতে নিরাপদে এবং সম্মানের সঙ্গে নিজ দেশ মিয়ানমারে ফেরত যেতে পারে। বৈঠকে আন্তঃদেশীয় আর্থসামাজিক বিপর্যয় রোধে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের গুরুত্ব তুলে ধরেন তিনি।

গাম্বিয়াকে আইনি সহায়তা দেওয়ার জন্য ওআইসিকে ধন্যবাদ জানিয়ে রোহিঙ্গাদের ন্যায়বিচার প্রাপ্তিতে মামলা চলমান রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করেন ড. মোমেন। মামলার খরচ চালাতে ওআইসি সদস্য দেশগুলোকে স্বেচ্ছায় আর্থিক সহযোগিতার আহ্বান জানান তিনি। বৈঠকে সৌদি আরব, তুরস্ক, নাইজেরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ইরান, মিসর, পাকিস্তান ও গাম্বিয়াসহ অন্যান্য দেশের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

পাঠকের মতামত: