কক্সবাজার, বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

মেসি-নেইমারের বন্ধুত্ব ঝুঁকিতে!

দুই তারকা ফুটবলার লিওনেল মেসি ও নেইমারের জুনিয়রের বন্ধুত্বের গল্প কারো অজানা নয়। কিন্তু যখন ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মুখোমুখি তখন কোনো আবেগের জায়গা নেই বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন সেলেসাও সুপারস্টার নেইমার।

কোপা আমেরিকার ফাইনালে রোববার (১১জুলাই) ভোর ৬টায় রিও ডি জেনেইরোর মারাকানায় মুখোমুখি হবে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা। এই ম্যাচের আগে মেসির সঙ্গে বন্ধুত্ব নিয়ে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন নেইমার। সেখানেই বুঝিয়ে দেন এখন কোনো বন্ধুত্ব নেই, শুধু-ই শত্রুতা!

‘আমি বরাবরই যেমনটা বলে থাকি, মেসি আমার দেখা সবচেয়ে সেরা খেলোয়াড় এবং সে আমার খুব ভালো বন্ধু; কিন্তু এখন যেহেতু আমরা ফাইনালে পৌঁছেই গিয়েছি, এখন আমরা প্রতিদ্বন্দ্বী। আমি কোপা আমেরিকার শিরোপা জিততে চাই এবং খুব বেশিই চাই, কারণ তাহলে এটা হবে আমার প্রথম শিরোপা জেতা।’

মেসি-নেইমার বার্সেলোনায় এক সঙ্গে চার বছর কাটিয়েছেন। সেখানে দুজনের মাঝে গড়ে ওঠে বন্ধুত্ব। নেইমার স্পেন ছেড়ে ফ্রান্স চলে গেলেও ঘাটতি দেখা যায়নি তাতে। বারে বারে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে প্রকাশিত হয়েছে দুজনের সম্পর্কের রসায়ন। কিন্তু এই ফাইনালকে ঘিরে এই বন্ধুত্ব এখন ঝুঁকির মুখে বলে মনে করেন নেইমার!

নেইমার আরও বলেন, ‘মেসি জাতীয় দলের হয়ে একটা শিরোপা জেতার জন্য বহু বছর ধরেই চেষ্টা করছে এবং প্রতিবারই যেহেতু আমরা টুর্নামেন্টে টিকে থাকি না, তাই আমি তখন তাকেই সমর্থন দিয়েছি। ২০১৪ বিশ্বকাপে যখন সে জার্মানির মুখোমুখি হলো, তখনও মেসির পক্ষেই ছিলাম।’

ভিডিও গেমের সঙ্গে তুলনা দিয়ে দারুণভবে ব্যখাও দিয়েছেন নেইমার, ‘যখন তুমি কারো বন্ধু তখন তার সঙ্গে বন্ধুত্বটা ভুলে যাওয়া কঠিন। কিন্তু উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, যখন ভিডিও গেম খেলবা বন্ধুর সঙ্গে যেকোনো উপায়ে তাকে হারাতে চাইবা। এই একই বিষয়টা হবে রোববার।’

পাঠকের মতামত: