কক্সবাজার, শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন মহলের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

রামুর ঈদগড়ে পাহাড়ী ঢলের পানিতে নিন্মাঞ্চল প্লাবিত

কামাল শিশির, রামু::

কক্সবাজার রামুর ঈদগড়ে পাহাড়ী ঢলের পানিতে চরপাড়া, রেনুরকুল, জালালের জুম, কেম্পরচরসহ আরো বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

২৬ জুলাই সন্ধ্যা থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টির পানিতে এলাকার চারিদিক বর্তমানে পানিতে নিমজ্জিত। তৎমধ্যে উল্লেখিত এলাকাগুলো ব্যাপক ভাবে প্লাবিত হয়েছে।

পাহাড়ী ঢলের পানিতে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে এলাকার কৃষকদের। পানিতে ভেসে গেছে পেপে বাগানসহ বাঁশ,গাছ আরো কত কিছু। ভেঙ্গে গেছে খালের দু পাড়। নষ্ট হল বিজতলা,কলা বাগান ও ফসলি জমি।

সরেজমিনে দেখা যায়, নদির দু পাড়ের লোকজনের পাশাপাশি আর্থিক ভাবে বেশি ক্ষতির সম্মুখীন হয় চরপাড়া ও রেনুরকুল গ্রামের লোকজনের। ২দিন ব্যাপি প্রচুর বৃষ্টিতে তাদের ঘরে পানি প্রবেশ করায় রান্না বান্নাও করতে পারছেনা।

তাৎক্ষণিকভাবে ইউপি চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমদ ভুট্টো, সদস্য শহিদুল ইসলাম এলাকা পরিদর্শন উত্তর রান্না করা বিরানি খাবার সহ নানা খাদ্য সামগ্রী ঘরে ঘরে বিতরণ করেন।

এছাড়া সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী সোলতান মাহমুদ কাউছার শুকনো খাবার এবং মেম্বার প্রার্থী জসিম উদ্দিন সিকদারসহ অন্যান্যরা শুকনো খাবারসহ বিরানি ঘরে ঘরে বিতরণ করেন।

অপরদিকে সেচ্ছাসেবী সংগঠন ব্লাড় ডোনাস ক্লাব ও সৃজন সেচ্ছাসেবী সংগঠনও নানা খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন অসহায়দের মাঝে।

এ রির্পোট লিখাকালীন সময়েও বৃষ্টি না থামায় এলাকাবাসীর মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমদ ভূট্টো জানান, এলাকার অভিভাবক হিসেবে পাহাড়ি ঢলে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলোর মাঝে নানা খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। যা অতিতেও বিতরণ করেছিলাম এবং প্রয়োজন বশত চলমান থাকবে বিতরণ কার্যক্রম। এছাড়া তিনি পাহাড়ের ঢালুতে এবং নদীর দু পাড়ে বসবাসরত সবাইকে সতর্ক থাকার পাশাপাশি প্রয়োজনে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে আসার আহবান জানান।

পাঠকের মতামত: