কক্সবাজার, শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ফাঁকা কক্সবাজার

মহামারি করোনা পরিস্থিতি কঠিন হওয়ায় বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) থেকে সরকার কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে। লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে শুক্রবার (২ জুলাই) দুপুর পর্যন্ত ফাঁকা রয়েছে কক্সবাজার শহর। রাস্তার উপর ঘুরে বেড়াচ্ছে গবাদি পশু।

প্রথমদিনের মতো দ্বিতীয়দিনেও লকডাউন বাস্তবায়নে মাঠে রয়েছে পুলিশ, বিজিবি ও সেনাবাহিনী।

লকডাউন অমান্য করে অযৌক্তিক কারণে বাইরে বের হওয়ার অভিযোগে কক্সবাজারে প্রথমদিনে ১৬১ টি মামলায় ১৭২ জনকে দণ্ডিত করা হয় এবং ৯১, ৬৫০ টাকা জরিমানা গুনতে হয়। প্রথমদিনে শহরে জেলা প্রশাসনের ৫০টি অভিযান পরিচালনা হয় বলে জানিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া সুলতানা।

কক্সবাজারে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে সকাল থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সেনাবাহিনী, বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যদের টহল দিতে দেখা গেছে।

প্রতিটি মোড়ে মোড়ে রয়েছে পুলিশের চেকপোস্ট। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বের হলে তাকে কঠিন জবাবদিহিতার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। কোথায় যাওয়া হচ্ছে, গন্তব্যের কারণ দেখানোসহ হাসপাতালের পরামর্শপত্র ও অন্যান্য পত্র দেখানোর পর তাদের যেতে দেয়া হচ্ছে।

লকডাউনে বিনা প্রয়োজনে বাসা থেকে বের ও দোকানপাট খোলা রাখা সম্পূর্ণ বন্ধ। শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় ওষুধের জন্য ফার্মেসি ও খাবার পার্সেল নেয়ার জন্য সীমিত পরিসরে রেস্টুরেন্ট খোলার অনুমতি রয়েছে।

পরবর্তী সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত আগামী ৭ জুলাই পর্যন্ত কঠোর লকডাউন ও অভিযান অব্যাহত থাকবে।

পাঠকের মতামত: