কক্সবাজার, শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২

লিটনের বিদায়ে ভাঙল জুটি

দ্বিতীয় টেস্টের পঞ্চম ও শেষ দিন ফলোঅনে নেমেও স্বস্তি এনে দিতে পারেনি বাংলাদেশের ব্যাটিং। ২৫ রান তুলতেই হারায় ৪ উইকেট। লাঞ্চ ব্রেকের আগে মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস প্রতিরোধ গড়েছিলেন। দারুণ ব্যাট করে দলকে শতকের কাছে আনতেই উইকেট হারান এ ব্যাটার। সাজিদ খানের স্পিনে ফাওয়াদের হাতে ক্যাচ তুলে ব্যক্তিগত ৪৫ রানে বিদায় নেন তিনি।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৫ উইকেট হারিয়ে ৩৯ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১২১ রান।

এর আগে প্রথম ইনিংসে ৮৭ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পর ফলোঅনে পড়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে বাংলাদেশ। কিন্তু এই ইনিংসেও পূর্বের ন্যায় পরপর উইকেট হারাচ্ছে বাংলাদেশ। অভিষেক হওয়া মাহমুদুল হাসান জয় গত ইনিংসে ডাক মারার পর এই ইনিংসে ফিরেছেন ৬ রানে।

কয়েক বল না যেতেই শাহিন শাহ আফ্রিদির বলে এলবিডব্লিউ হয়ে উইকেট হারান সাদমান ইসলাম। ২ রান করে তার ফেরার কিছুক্ষণ পর বিদায় নেন অধিনায়ক মুমিনুলও। হাসান আলীর বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ব্যক্তিগত ৭ রানে সাঝঘরে ফেরেন তিনি। গত ইনিংসে থিতু হয়ে থাকা নাজমুল হাসান শান্ত এবার আর পারলেন না। ফাওয়াদ আলমের হাতে ক্যাচ তুলে শাহিন আফ্রিদির দ্বিতীয় শিকার হয়ে ব্যক্তিগত ৬ রানে বিদায় নেন তিনি।

এর আগে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাকিস্তান প্রথম ইনিংস ৩০০ রানে ঘোষণার পর ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৮৭ রানেই সবগুলো উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। দেশের মাটিতে টেস্ট ফরম্যাটে এটাই বাংলাদেশের সর্বনিম্ন রান।

ঢাকা টেস্টের চতুর্থ দিনে ৭ উইকেটে ৭৬ রান নিয়ে খেলা শুরু করে বাংলাদেশ। তবে পাকিস্তানি বোলিং তোপে আজ মাত্র ১০ রান যোগ করতে পেরেছে টাইগাররা, গুটিয়ে গেছে মাত্র ৮৭ রানে। ফলে ফলোঅনে পড়েছে বাংলাদেশ।

পাকিস্তানের সাজিদ খান ৮ উইকেট শিকার করেছেন। বাংলাদেশ আজ যে ১০ রান করেছে পুরোটাই এসেসে সাকিব আল হাসানের ব্যাট থেকে। ৩৩ করে বাংলাদেশ ইনিংসের সর্বোচ্চ স্কোরার তিনিই। নাজমুল হোসেন শান্তর ব্যাট থেকে এসেছে ৩০।

পাঠকের মতামত: