কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১

লোহাগাড়ায় ভাবীর ছুরিকাঘাতে প্রাণ গেলো দেবরের, গ্রেপ্তার ২

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় ভাবীর ছুরিকাঘাতে মোহাম্মদ ইউনুস (৪০) নামের এক যুবক নিহত হয়েছে।

বুধবার (২৩ জুন) সন্ধ্যা ৭ টার দিকে উপজেলার বড়হাতিয়া কুমিরাঘোনা জঙ্গলী পীর পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। সে একই এলাকার মৃত আলী আহমদের ছেলে।

ঘটনাস্থল থেকে ইউনুসের বড় ভাই মোহাম্মদ ইউছুফ (৪৫) এবং তার স্ত্রী নাছিমা আক্তারকে (২৩) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

চুনতি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক রাফিকুল ইসলাম জামান জানান, বুধবার সকালে ইউনুসের বড় ভাই ইউছুফ এবং তার স্ত্রী নাছিমা ইউনুসের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দেন। সেখানে তার বিরুদ্ধে নাছিমাকে অনৈতিক কুপ্রস্তাব দেয় বলে উল্লেখ করেন।

এ অভিযোগ পেয়ে একইদিন বিকেলে এসআই শিশির বিন্দু ধর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তবে বিষয়টি তাৎক্ষণিক সমাধান হয়নি। পুলিশ চলে আসার পর ইউছুফের স্ত্রী তার দেবর ইউনুসকে ছুরিকাঘাত করেন। সেখান থেকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ইউনুসের স্ত্রী রেহেনা আক্তার বুলু সাংবাদিকদের জানান, ইউছুফ চট্টগ্রাম শহরে থাকার সুবাদে বাড়িতে তার স্ত্রীর কাছে বিভিন্ন সময় বাইরের লোকজন আসাযাওয়া করতো। এঘটনায় ইউনুস প্রতিবাদ করায় তার স্বামীকে খুন করা হয়েছে।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাকের হোসাইন মাহমুদ বলেন, ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্ত স্বামী-স্ত্রীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ওই ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য থানায় আনা হয়েছে। সকালে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পাঠকের মতামত: