কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

সিনেমা স্টাইলে স্কুলছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা, দুই বখাটে গ্রেপ্তার

কক্সবাজারের রামুতে স্কুল চলাকালীন সিনেমা স্টাইলে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলে নিয়ে অপহরণ করার চেষ্টাকালে দুই বখাটেকে ধরে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা।

 

সোমবার (২১ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার উখিয়ারঘোনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

 

জানা যায়, ঘটনাটি স্কুলের শিক্ষকদের নজরে পড়লে তারা দ্রুত ৯৯৯ এ ফোন দেন এবং এলাকাবাসীর সহযোগিতায় দুই বখাটেকে ধরে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাদের সাজা দেওয়া হয়।

 

এদের মধ্যে অপহরণকারী আব্দুল হককে (২২) ১ বছর এবং তার সহযোগী রেজাউল করিমকে (২০) ৬ মাসের জেল দেওয়া হয়। আব্দুল হক কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের গুদামকাটা গ্রামের ছৈয়দ নুরের ছেলে এবং রেজাউল একই গ্রামের নুর আহম্মদের ছেলে।

 

উখিয়ারঘোনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো. তাজ উদ্দিন বলেন, স্কুল চলাকালীন রাস্তায় এক ছাত্রীর চিৎকার চেঁচামেচি শুনে শিক্ষকরা বের হই। এ সময় দেখা যায় পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে টেনেহিঁচড়ে দুই বখাটে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলছেন। ছাত্রীটি চিৎকার করে কান্নাকাটি করছে। তখন এক শিক্ষক দ্রুত ৯৯৯ এ ফোন দেন এবং এলাকাবাসীর সহযোগিতায় ধরে তাদের পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

 

রামু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ারুল হোসাইন পূর্বকোণকে বলেন, ৯৯৯ এ ফোন পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে দুই বখাটেকে আটক করা হয়। পরে তাদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে নিয়ে যাওয়া হলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে একজনকে ১ বছর আরেকজনকে ৬ মাসের জেল দেন তিনি।

 

রামু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা মোস্তফা পূর্বকোণকে বলেন, ক্লাস চলাকালীন স্কুল থেকে ছাত্রীকে তুলে নেওয়ার বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। দণ্ডবিধি ১৮৬০ এর ৫০৯ ধারায় দুই বখাটেকে যথাক্রমে ১ বছর ও ৬ মাস মেয়াদে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

পাঠকের মতামত: