কক্সবাজার, শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২

হেলিকপ্টার বিধ্বস্তে নিহত ৩৯, সাঁতরে তীরে ফিরলেন মন্ত্রী

পূর্ব আফ্রিকার দেশ মাদাগাসকারের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় সমুদ্র উপকূলে হেলিকপ্টার বিধ্বস্তে অন্তত ৩৯ জন নিহত হয়েছেন। তবে বিধ্বস্ত এই হেলিকপ্টারের দুই আরোহী বেঁচে ফিরেছেন প্রায় ১২ ঘণ্টা সাঁতার কেটে। দীর্ঘ সময় সাঁতরে তীরে ফেরা দেশটির দুই আরোহীর একজন মন্ত্রী বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

গত সোমবার এই হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়। এই ঘটনায় এখনও আরও দুই আরোহী নিখোঁজ রয়েছেন। পুলিশ এবং বন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে, তাৎক্ষণিকভাবে হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের কারণ পরিষ্কার হওয়া যায়নি।

মাদাগাসকারের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় মাহামবো বন্দরের প্রধান জিন-এডমন্ড রান্দ্রিয়ানআন্তেনাইনা বলেছেন, বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারের আরোহী ছিলেন দেশের পুলিশ প্রতিমন্ত্রী সার্জ গেলে এবং তার সহযোগী একজন পুলিশ কর্মকর্তা। সোমবার হেলিকপ্টার বিধ্বস্তের সময় তারা নিরাপদে প্যারাসুট ব্যবহার করে বেরিয়ে আসেন।

পরে উপকূলের হিমশীতল পানিতে ১২ ঘণ্টার বেশি সাঁতরে মঙ্গলবার সকালের দিকে সমুদ্রতীরবর্তী মাহামবো শহরের পৃথক স্থানে পৌঁছান তারা।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করা একটি ভিডিওতে দেখা যায়, ৫৭ বছর বয়সী গেলে পরিশ্রান্ত অবস্থায় একটি দোলনা চেয়ারে শুয়ে আছেন। তখনও তার পরনে দেশটির পুলিশ বাহিনীর পোশাক রয়েছে। দেশটির এই জেনারেল বলেন, ‘আমার মৃত্যুর সময় এখনও আসেনি।’ তবে তিনি ঠান্ডায় অসুস্থ হয়ে পড়লেও আহত হননি বলে জানিয়েছেন।

সোমবার অন্যদের সঙ্গে মাদাগাসকারের উত্তরপূর্বাঞ্চলীয় উপকূলে একটি জাহাজডুবির স্থান পরিদর্শনে গিয়েছিলেন পুলিশবিষয়ক ওই মন্ত্রী।

মঙ্গলবার দেশটির পুলিশের প্রধান জাফিসামবাতরা রাভোয়াভি বলেছেন, হেলিকপ্টার দুর্যোগে কমপেক্ষ ৩৯ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। প্রথম দিকে এই দুর্ঘটনায় ১৮ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছিল। পরে সেই সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ৩৯ জনে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া দুর্ঘটনায় এখনও আরও দু’জন নিখোঁজ রয়েছেন।

পাঠকের মতামত: