কক্সবাজার, শনিবার, ১৯ জুন ২০২১

প্রকাশিত সংবাদের বিরুদ্ধে নিজামের প্রতিবাদ

গত ১১মে কক্সবাজার থেকে প্রকাশিত অনলাইন পোর্টাল আলোকিত উখিয়া, উখিয়া নিউজ টুডেসহ কয়েকটি অনলাইনে ‘রোহিঙ্গা নেজাম এখন মানবাধিকার নেতা! ইয়াবার বদৌলতে কোটিপতির তালিকায়’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।

অনলাইনে উল্লেখিত সংবাদের সাথে বাস্তবতার কোন মিল নেই। সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন, উদ্দেশ্যেপ্রণোদিত ও মানহানিকর। মূলত এলাকার একটি অসাধু চক্র দীর্ঘদিন ধরে আমার বিরুদ্ধে উঠেপড়ে লেগেছে। ওই চক্রটি আমার যাতে এলাকায় মান-ক্ষুন্ন হয় তার বিরুদ্ধে নানা অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে।

আসলে আমি কোন দিন ইয়াবা ব্যবসার সাথে অতিতেই জড়িত ছিলাম না এবং বর্তমানেও জড়িত নেই। এলাকায় অন্যায়ের বিরুদ্ধে অবস্থান করি বিধায় একটি মহল তিলকে তাল বানিয়ে আমাকে বেকায়দায় ফেলানোর চেষ্টা করছে এবং আমার বিরুদ্ধে সাংবাদিক ভাইদের মিথ্যা সংবাদ দিয়ে নানান ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে।

প্রকাশিত সংবাদে আমার নাম জড়িয়ে দেয়ায় আমি এবং আমার পরিবার সত্যিই বিস্মিত ও মর্মাহত। সংবাদে নাম জড়িয়ে প্রকাশিত অংশটুকু সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন, উদ্দেশ্যপ্রনোদিত।

নেজামের দাবী, আমি দীর্ঘদিন ধরে বাসায় মুরগীর খামার করে আসছি, নিজের যোগ্যতাকে কাজে লাগিয়ে রোহিঙ্গা শিবিরে এনজিওতে চাকরি ও করেছি পাশাপাশি ক্যাম্পে ঠিকাদারির কাজ করেছি এবং রয়েছে ব্যবসা প্রতিষ্টান। আর এই কাজ করে আমার যা আয় হয় তা দিয়ে আমি ও আমার পরিবার সুন্দরভাবে জীবন যাপন করছি এবং করতে পারি। এতে অবৈধ আয় আমার কোনো প্রয়োজন পড়ে না। প্রশাসন অনুসন্ধান করলে বুঝতে পারবে আমার আয়ের বিষয়টা। আমি সবসময় আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আইন মেনেই আমি কাজ করি।

কিন্তু কয়েকদিন ধরে আমার নামে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশিত হচ্ছে বিভিন্ন গণমাধ্যমে। যা সত্যিই দু:খজনক। যে সংবাদে আমার নাম প্রকাশ হয়েছে এর কোনো ভিত্তি বা সত্যতা নেই।

এমন সময় আমার বিরুদ্ধে মনগড়া মিথ্যা সংবাদ সত্যিই দু:খজনক। যা আমার চলার পথে এক ধরণের কাটা। এমন দুর্নাম নিয়ে আমি কোনো সময় সমাজে বসবাস করিনি। আগামীতেও বসবাস করবো না। বৈধভাবে ব্যবসা করে আমি জীবনের হাল ধরেছি। বিভিন্ন গণমাধ্যমে আমার বিষয়ে অনেক কিছু মন্তব্য বা সংবাদ উপস্থাপনা করা হয়েছে। যার বিন্দুমাত্রও আমি অবগত নয়। প্রকাশিত সংবাদও আমি দেখিনি। আমার পরিবার ও এলাকার লোকজন সংবাদের বিষয়টি আমাকে জানিয়েছে। যা শুনে আমি আসলেই মর্মাহত। তাছাড়া সংবাদে রোহিঙ্গা হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। বিষয়টি আরো ব্যতিত করেছে আমাকে।

এককথায় বলতে চাই, এমন অপরাধে আমি জড়িত নয়। আমি সাংবাদিক ভাইয়েরা সঠিক তথ্য নিয়ে নিউজ করুক যাতে অহেতুক আমার মতো মানুষ হয়রানির শিকার না হয়।

আমি উক্ত মিথ্যা সংবাদের তীব্র নিন্দা ও জোর প্রতিবাদ জানাচ্ছি। ভবিষ্যতে আমার বিরুদ্ধে এধরণের এহেন মিথ্যা ও উদ্দেশ্যেমূলক সংবাদ ছাপালে আমি আইনগত ব্যবস্থা নিতে বাধ্য থাকিব। সংবাদটি প্রশাসন, এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ট কাউকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

প্রতিবাদকারী..
নিজাম উদ্দিন
পিতাঃ মরহুম হোসেন আহমেদ সওদাগর।
সাং পূর্ব ফলিয়া পাড়া,উখিয়া কক্সবাজার।

পাঠকের মতামত: