কক্সবাজার, শুক্রবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২০

চতুর্থ দফা রিমান্ড শেষে কারাগারে সাবেক ওসি প্রদীপ

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ হত্যা মামলায় অভিযুক্ত আসামি বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে চতুর্থ দফায় রিমান্ড শেষে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে তাকে কক্সবাজার আদালতে তোলা হয়। এর আগে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে। বিকেল ৪টার দিকে আদালত চত্বর থেকে পুলিশের প্রিজনভ্যানে করে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় জেলা কারাগারে।

গতকাল সোমবার প্রদীপকে চতুর্থ দফায় এক দিনের রিমান্ডে নিয়েছিল তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাব।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এএসপি খাইরুল ইসলাম জানান, একদিনের রিমান্ড শেষ হওয়ায় নিয়মানুসারে আমরা তাকে আদালতে সোপর্দ করেছি। তিনি ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিচ্ছেন না।

এর আগে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যার ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলার তিন সাক্ষীকে তৃতীয়বারের মতো আবারও তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এরপরই তাদের নিয়ে যাওয়া হয় র‌্যাব হেফাজত। মঙ্গলবার দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে তাদের কক্সবাজার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহর আদালতে হাজির করে চারদিনের রিমান্ডের আবেদন করে র‌্যাব। শুনানি শেষে আদালত প্রত্যকের বিরুদ্ধে তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আজ রিমান্ডপ্রাপ্তরা হলেন, টেকনাফের বাহারছড়ার মারিশবুনিয়ার নুরুল আমিন, নিজাম উদ্দীন ও মোহাম্মদ আইয়াস। এর আগে গত ২০ আগস্ট প্রথম দফায় ৭ দিন ও ২৫ আগস্ট দ্বিতীয় দফায় ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন আদালত। সিনহা হত্যা ঘটনায় সম্পৃক্ততার অভিযোগে র‌্যাবের একটি দল টেকনাফের মারিশবুনিয়া এলাকা থেকে গত ৯ আগস্ট পুলিশের দায়ের মামলার এ স্বাক্ষীদের গ্রেপ্তার করেছিল।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের মারিশবুনিয়া পাহাড়ে ভিডিওচিত্র ধারণ করে মেরিন ড্রাইভ দিয়ে কক্সবাজারের হিমছড়ি এলাকার নীলিমা রিসোর্টে ফেরার পথে শামলাপুর তল্লাশি চৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ।

পাঠকের মতামত: