কক্সবাজার, শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০

উখিয়ায় সড়ক ছুঁয়ে সওজ’র দোকান নিমার্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক::

বর্তমান সরকার যানজট নিরসন ও সড়ক দূর্ঘটনা শূণ্যের কোটায় নিয়ে আসার জন্য দেশের তৃণমূল পর্যায়ে সড়ক সম্প্রসারণ করছে। এরই ধারাবাহিকতায় উখিয়ায় দুটি প্যাকেজে সড়ক সম্প্রসারণের কাজ চলছে। এসময় সড়ক ও জনপদ বিভাগ এবং পল্লী বিদ্যুৎ সড়কের
আশে পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে। প্রশ্ন উঠেছে অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ করার
পাশাপাশি সড়ক ও জনপদ বিভাগ তাদের পুরোনো স্থাপনার পাশের্ব সড়কের উপরে কিভাবে দোকান
নিমার্ণ করছে? এনিয়ে স্থানীয়দের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। কেউ কেউ বলছে
সড়ক ও জনপদ বিভাগ বলে কথা………………….

সরেজমিন ঘটনাস্থল উখিয়া সড়ক ও জনপদ বিভাগ ঘুরে সেখানে দায়িত্বপ্রাপ্ত এমএলএসএস আইনাল আহমদের সাথে কথা বলে জানতে চাওয়া হলে এখানে কি নিমার্ণ করা হচ্ছে? জবাবে তিনি বললেন, থাকার জন্য একটি কাঁচা ঘর নিমার্ণ করা হচ্ছে। অথচ পার্শ্ববর্তী কয়েকজন লোক জানালেন, দুই লাখ টাকা সেলামী নিয়ে ওই দোকানটি ভাড়া দেওয়া হচ্ছে। এনিয়ে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক লোকজন জানালেন, যেভাবে সড়কের উপর দোকান নিমার্ণ করছে সেখানে পথচারী চলাচল পুরোপরি শংকায়। যেকোন মুহুর্তে সড়ক দূর্ঘটনায় হতাহতের আশংকা রয়েছে।

এ ব্যাপারে সহকারি কমিশনার (ভূমি) আমিমুল এহসান খান জানান, তিনি সরেজমিন গিয়ে নিমার্ণধীন স্থাপনাটি দেখবেন এবং সড়ক ও জনপদ বিভাগের নিবার্হী প্রকৌশলীর
সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নেবেন।

সড়ক ও জনপদ বিভাগের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী মুজিবুর রহমান জানান, বিষয়টি তিনি জানেন না। তবে খোঁজ খবর নিয়ে সেখানে কি ধরনের স্থাপনা নিমার্ণ করা হয়েছে এবং তার অনুমতি নেওয়া হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখে উর্ধ্বতন কতৃপক্ষকে বিষয়টি জানাবেন।

এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপদ বিভাগের নিবার্হী প্রকৌশলী পিন্টু চাকমার সাথে যোগযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে অফিসের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা জলিল আহমদ জানালেন, উখিয়ায় সড়ক সংলগ্ন জনপদ বিভাগের জায়গার উপর কি ধরনের দোকান নিমার্ণ করা হচ্ছে তা তিনি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেবেন।

পাঠকের মতামত: