কক্সবাজার, শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১

১০ বছরে কি পেলাম : এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী

১/ মিথ্যা বানোয়ট ৫টি মামলার আসামি সহ জেলে বাসিন্দা হয়েছি।
২/ নিজের অর্থ সম্পদ ব্যায় করে জনসেবা দেওয়ার পর ও দুর্নামের ভাগিদার।
৩/ নিজের ছেলে সন্তানের পড়া লেখার ক্ষতি।
৪/ রাত দিন নির্ঘুমে জনসেবা দেওয়ার পরও নিন্দুকের রোশানলে।
৫/ নিজের অর্থে যাদেরকে সহায়তা করেছি তারাও বলে কিছু পাইনাই।
৬/ বিরোধীদের প্রতিহিংসা।
৭/ নিজের স্বত্বেও জমি পরে ভোগ করলেও বলা যায়না।
৮/নিজের ৭টি গাড়ি বিক্রি করার পরও ৪০ লক্ষ টাকা ঋণগ্রস্ত।
৯/ রাত্রে মানুষ ঘুমায়, প্রশাসন আমাকে দিয়ে অন্যের ঘর কুড়ায় (ইয়াবা কারবারির বাড়ি)
১০/ভোরবেলা ঘুমাতে গেলে নিজের বেডরুমে জনতার ভিড়।
যার কারনে নির্বাচন হতে সরে যাচ্ছি। ১০ বছরের খেদমতে অনেকের মনে দুঃখ দিয়েছি জেনে ও অজান্তে সকলের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করি। অর্থও নিজের শরিলের অক্ষমতার কারনে এই সিদ্ধান্ত নিতে বাদ্য হলাম।যত দিন অপর জন নির্বাচিত হয়নাই ততদিন জনগনের খেদমত করেযাব।আগামীতে যে নির্বাচিতহবে তাকে দায়ত্ব বুঝিয়েদিয়ে কক্সবাজার গিয়ে নিজের বাচ্চাদেরকে সময় দেব তাদের পড়া লেখায় সহায়তা করব।

এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী
চেয়ারম্যান,
পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদ
উখিয়া-কক্সবাজার।

পাঠকের মতামত: