কক্সবাজার, শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১

ঘরে মিলল প্রবাসীর স্ত্রী ও ৩ সন্তানের গলাকাটা লাশ

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় একটি ফ্ল্যাট বাসার দ্বিতীয় তলা থেকে এক মালয়েশিয়া প্রবাসীর স্ত্রী ও তাদের তিন সন্তানের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার তেলিহাটি ইউনিয়নের আবদার গ্রামে। বৃহস্পতিবার বিকেলে লাশগুলো উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতরা হলেন, মালয়েশিয়া প্রবাসী কাজলের স্ত্রী ফাতেমা, তাদের দুই মেয়ে নুরা, হাওয়ারিম এবং প্রতিবন্ধী ছেলে ফাদিল ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, প্রতি দিনের মতো বুধবার রাতে তারা সকলেই নিজ ঘরে ঘুমাতে যান। সকাল গড়িয়ে দুপুর হলেও তারা কেউ ঘর থেকে বের না হওয়ায় নিহতের স্বজনরা মই বেয়ে দোতলায় উঠে ঘরের মেঝেতে রক্ত দেখতে পায়। পরে শ্রীপুর থানা পুলিশকে জানানো হয়। পুলিশ গিয়ে লাশগুলো উদ্ধার করে। কীভাবে বা কেন তারা খুন হলো, তা জানতে পুলিশ অনুসন্ধান শুরু করেছে।

মালয়েশিয়া প্রবাসী কাজলের ছোট ভাই আরিফ জানান, গত রাতে তার ভাবি ঘুমানোর সময় বলেছিলেন, আজ সকালে যেন মাংস নিয়ে আসেন তিনি। আজ সকালে মাংস কেনার টাকা আনতে গিয়ে তাদের কোনো সাড়া পাওয়া যাচ্ছিল না। এভাবে সকাল পেরিয়ে দুপুর এলেও তারা কোনো সাড়া না দিলে মই বেয়ে দোতলায় উঠে ঘরের মেঝেতে রক্ত দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেওয়া হয়।

কাজল দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকার সময় ইন্দোনেশিয়ান মেয়ে ফাতেমাকে বিয়ে করেন। পরে শ্রীপুর আবদার গ্রামের জমি কিনে বাড়ি তৈরি করলে তার স্ত্রী-সন্তানরা এখানেই বসবাস করছিল। কাজলের আগের বাড়ি ময়মনসিংহের গফরগাঁও থানার গোলাবাড়ি এলাকায়।

এ বিষয়ে শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী জানান, খবর পেয়ে আজ বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে লাশগুলো উদ্ধার করা হয়। লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হচ্ছে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হবে। কেন বা কীভাবে এ ঘটনা ঘটেছে, তা জানতে অনুসন্ধান চলছে।

পাঠকের মতামত: