কক্সবাজার, সোমবার, ১৯ অক্টোবর ২০২০

কক্সবাজার বুধবারে করোনা পজেটিভ ২১, ভিন্ন জেলায় ২ জন

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসে কক্সবাজার জেলায় প্রতিদিন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে আশঙ্কাজনক হারে। জেলায় বর্তমানে গড়ে প্রতিদিন প্রায় অর্ধশত জন আক্রান্ত হচ্ছেন। গত ১০ দিনে শনাক্ত হওয়া ৫০৩ জনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী এমনটাই দেখা গেছে। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় জেলায় নতুন করে ২১ জনের শরীরে ধরা পড়েছে করোনার অস্তিত্ব।

এনিয়ে জেলায় করোনাক্রান্তের সংখ্যা দাড়াল ৮৬৭ জনে। আর বুধবার শনাক্ত হওয়া নতুন এই ২১ জনকে নিয়ে কক্সবাজার জেলায় আক্রান্তের দিক দিয়ে ১ হাজারের ঘরে পা দিতে যাচ্ছে প্রাণঘাতি এ ভাইরাসটি। এছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় করোনা রোগী এবং উপসর্গ নিয়ে মৃত্যূ হয়েছে ২ জনের। এর ফলে জেলায় করোনাক্রান্ত মৃতের সংখ্যা দাড়াল ১৯ জনে।

বুধবার বিকালে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. অনুপম বড়ুয়া জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় একটি পিসিআর ল্যাবে ৭০ টি নমুনা পরীক্ষা হয়। এর মধ্যে ২৩ টি নমুনার ফল আসে পজিটিভ। আর জেলায় শনাক্ত হয়েছে ২১ জন।

আক্রান্তদের মধ্যে সদরের ৭ জন,রামুর ৩ জন, চকরিয়ার ৮ ,টেকনাফের ৩ জন। এছাড়া নাইক্ষ্যংছড়ির ১ জন এবং লামার ১ জন নতুন পজিটিভ অছেন। বাকি ৪৭ জনের নেগেটিভ আসে।

এনিয়ে জেলায় ৬৩তম দিনে করোনা রোগীর সংখ্যা দাড়াল মোট ৮৬৭ জন এবং মারা গেছে ১৯ জন। এর মধ্যে মাত্র শেষ ১০দিনেই জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫২৪ জন। এছাড়া ২৯ রোহিঙ্গাও করোনায় আক্রান্ত হয়েছে এবং এক জনের মৃত্যু হয়েছে।

কক্সবাজার জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে, গত ২ এপ্রিল থেকে ৩জুন পর্যন্ত কক্সবাজার জেলায় করোনার হটস্পট সদর উপজেলায় আক্রান্ত এবং মৃত্যূ সবচেয়ে বেশি। এখানে মোট আক্রান্ত‘র সংখ্যা ৪১৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২৩ জন। এছাড়াও দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা চকরিয়া উপজেলায় ১৮৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১১২জন। আক্রান্তের দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে উখিয়া।এ উপজেলায় এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১৩৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২৫জন। এর পরে রয়েছে রামুতে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৫৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৩জন। পেকুয়ায় পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৪৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২৬জন,মহেশখালীতে পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ৩৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১৯ জন,টেকনাফে পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ৪৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮জন এবং কুতুবদিয়ায় পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ জন।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে আরও জানা গেছে,২ জুন পর্যন্ত কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন হাসপাতালের আইসোলেশন(নিভৃতবাস) ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ৩৩৭ জন কভিড-১৯ রোগী এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২১৬ জন। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টিনে অবস্থান করছেন ১ হাজার ১১০ জন এবং ছাড়পত্র পেয়েছেন ২২৯৮ জন। প্রাতষ্ঠানিক কোয়ারেনটাইনে রয়েছেন ২২০ জন এবং ছাড়পত্র পেয়েছেন ৫৮৩জন। এ পর্যন্ত জেলায় আর মারা গেছেন ১৯ জন কভিড-১৯ রোগী।এর মধ্যে সদরে ১৫ জন,চকরিয়ায় ৩জন এবং রামুতে ১ জন।

কক্সবাজারস্থ শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন (আরআরআরসি) কার্যালয়ের প্রধান স্বাস্থ্য সমন্বয়কারী ডা.আবু তোহা জানিয়েছেন,এ পর্যন্ত ২৯ রোহিঙ্গা করোনা পজিটিভ হয়েজন।এর মধ্যে মারা গেছেন ১জন। আর রোহিঙ্গা আইসোলেশন ইউনিটে ৩০ জনের অধিক ভর্তি রয়েছেন।

পাঠকের মতামত: