কক্সবাজার, বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০

বাঁশখালীতে স্কুলছাত্রী ধর্ষণের শিকার, আটক-৪

বাঁশখালী উপজেলার গন্ডামারা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মধুখালী গ্রামের মৎস্য ঘেরে ৮ম শ্রেণী পডুয়া এক স্কুল ছাত্রী গণধর্ষণের শিকার হয়েছে।  এঘটনায় এলাকাবাসী ৪ ধর্ষককে হাতে নাতে ধরে পুলিশে সোপর্দ করেছে।  থানা পুলিশের এস আই নাজমুল হক মঙ্গলবার রাত ১০ টায় ৪ ধর্ষককে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

জানাযায়, চাম্বল ইউপির পশ্চিম চাম্বল গ্রামের স্কুল পডুয়া ছাত্রীটির (১৪) সাথে গন্ডামারা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মধুখালী গ্রামের আবদুর রশিদের পুত্র আবুল কাশেমের প্রেমের সম্পর্ক ছিলো। সেই সম্পর্কের টানে সোমবার দুপুরে ওই ছাত্রী কাশেমের বাডিতে যায়। সেখান থেকে সন্ধ্যায় প্রেমিক কাশেম তাকে ফুসলিয়ে একই এলাকার কালু সিকদারের পুত্র মোঃ মনিরের মৎস্য ঘেরের খামার বাডিতে নিয়ে যায়। সেখানে কাশেমসহ তার ৩ বন্ধু জোরপূর্বক পালাক্রমে ধর্ষণ করে ওই ছাত্রীকে। ধর্ষিতার চিৎকারে আশ-পাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্বার ও ৪ ধর্ষককে হাতে নাতে আটক করে। মঙ্গলবার সকালে থানা পুলিশের কাছে ধর্ষিতা ও ধর্ষকদের সোপর্দ করে। আটককৃতরা হলেন- গন্ডামারা ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের আবদুর রশিদের ছেলে আবুল কাশেম (২০), এলাহি বক্সের ছেলে মোঃ রিয়াজ(২১), কালু সিকদারের ছেলে মোঃ মনির(১৮) ও মোঃ ইউনুছের ছেলে মোঃ আশেক(২০)

এব্যাপারে বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, ছাত্রীটির পিতা বাদি হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ধারায় মামলা দায়ের করেছে। আজ বুধবার সকালে নির্যাতিত ছাত্রীটির ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে।

পাঠকের মতামত: