কক্সবাজার, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার ‘বিশেষ ট্রেন’ ঈদের আগেই চালুর আশ্বাস

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার পথের বিশেষ ট্রেনটি নির্ধারিত সময়ের আগেই বন্ধ করে দিলেও কোরবানির ঈদের আগে আবার চালুর আশ্বাস মিরেছে। ট্রেনটি নিয়মিত করতে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের বাসিন্দাদের দাবির মধ্যে সেটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর এই আশ্বাস মিলেছে চট্টগ্রাম বিভাগীয় রেলওয়ে ব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলামের পক্ষ থেকে।

তিনি বলেন, “ইঞ্জিন সংকটের কারণে আপাতত কক্সবাজার-চট্টগ্রাম পথের বিশেষ ট্রেনটি বন্ধ করা হয়েছে। ঈদের আগেই আবার চালু হতে পারে।”
রোজার ঈদ উপলক্ষে গত ৮ এপ্রিল চট্টগ্রাম-কক্সবাজার পথে বিশেষ ট্রেনটি চলাচল শুরু হয়। চালুর পর থেকে ট্রেনটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। যাত্রীদের দাবির মুখে দুই দফা সময় বাড়িয়ে বিশেষ ট্রেনটি ১০ জুন পর্যন্ত চলাচল করার সময় নির্ধারণ করা হয়। তবে এর ১১ দিন আগেই বৃহস্পতিবার ট্রেনটির চলাচল বন্ধ হয়ে গেল।
চট্টগ্রাম-কক্সবাজার যাত্রীকল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. আবু সাঈদ তালুকদার বলেন, Òআমরা রেলমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছি আগে, পূর্ব রেলের কর্মকর্তাদের কাছে লিখিত দাবি জমা দিয়েছি, দেখাও করেছি। আমাদের দাবি ছিল স্পেশাল ট্রেনটি নিয়মিত করা। উল্টো বিশেষ ট্রেনটাই বন্ধ হয়ে গেল।

 

“আমাদের দাবি, ঈদের আগে অবিলম্বে ট্রেনটি আবার চালু করা হোক।”
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১১ নভেম্বর চট্টগ্রামের দোহাজারী থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত রেললাইনের উদ্বোধন করলেও ঢাকা-কক্সবাজার পথে কক্সবাজার এক্সপ্রেস চালু হয় ১ ডিসেম্বর। চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি শুরু হয় পর্যটক এক্সপ্রেস নামে আরেকটি ট্রেন।
চট্টগ্রাম-কক্সবাজার পথে কোন ট্রেন না থাকায় যাত্রীদের মধ্যে ক্ষোভ ছিল। পরে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বিশেষ ট্রেনটি চালু করা হয়।
বিশেষ ট্রেনটি প্রতিদিন সকাল ৭টায় ছেড়ে কক্সবাজার পৌঁছাত সকাল ১০টা ২০মিনিটে। আবার সন্ধ্যা ৭টায় কক্সবাজার থেকে ছেড়ে চট্টগ্রাম পৌঁছাত রাত ১০টায়।
ট্রেনটি ষোলোশহর, জানালিহাট, পটিয়া, দোহাজারী, সাতকানিয়া, চকরিয়া, ডুলহাজারা ও রামু স্টেশনে থামত। বিশেষ ট্রেনটির ১০টি বগিতে যাত্রী ধারণ ক্ষমতা ছিল ৪৩৮ জন।

পাঠকের মতামত: