কক্সবাজার, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

পলাতক নারী হাজতী রাশেদা অবশেষে পুলিশের হাতে আটক

পালিয়েও রক্ষা হলো না হাজতি নারী অবশেষে উখিয়া থামা পুলিশের হাতে নিজ বাড়ি থেকে আটক হয়েছে এই হাজতী নারী রাশেদা।

বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) সকালে রাজাপালং উত্তর পুকুরিয়া বাড়ি থেকে তাঁকে আটক করে উখিয়া থানা পুলিশ।

এ বিষয়ে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘পালানোর খবর আমাদের জানানো হয়। এরপর তাঁকে আটকের অভিযান শুরু হয় বুধবার থেকে। বৃহস্পতিবার তাঁকে আইনের আওতায় আনা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা রুজু করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।

কক্সবাজার জেলা কারাগারের জেল সুপার মোঃ শাহ আলম খান বলেন, ‘গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চিকিৎসার জন্য তাঁকে সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ওইসময় প্রবল বাতাস ও বৃষ্টি হচ্ছিল। হাসপাতালেও বিদ্যুৎ আসা-যাওয়া করছিল। মহিলা ওয়ার্ডে রোগীর প্রচুর চাপ ছিল। সেই সুযোগে ওই নারী হাজতি কারারক্ষীদের ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যায়। পালানোর পর তাঁকে ধরতে লোক লাগানো হয়। বৃহস্পতিবার সকালে উখিয়া থানা পুলিশ তাঁকে আটক করতে সক্ষম হয়।
তাঁর বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

জানা যায়, রাশেদাকে উখিয়া থানার মামলা নং—৩৪ দন্ডবিধি—৩৬৫/৩৮৬/৩৪ এ গ্রেফতার করা হয়। রাশেদা মৃগীরোগে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সন্ধ্যা ৭ টার দিকে ঘূর্ণিঝড় হামুন যখন তাণ্ডব চালাচ্ছিল সেই সুযোগে বাথরুমে যাওয়ার কথা বলে উপস্থিত দুইজন কারা রক্ষীকে ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে যায়। তাঁর হাজতি নং—৫৭১/২৩।
তিনি উখিয়া উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের উত্তর পুকুরয়া এলাকার মৃত নজরুল ইসলাম মেয়ে।

পাঠকের মতামত: